Author: জুলকারনাইন সায়ের (সামি)

আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আর মাত্র ১৫/১৬ মাস বাকি। এমন পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক আন্দোলনের নামে কেউ যাতে রাজপথে নেমে জ্বালাও-পোড়াও, ভাঙচুর, রাস্তা বন্ধ করে সভা-সমাবেশ, যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতা কিংবা অগ্নিসংযোগসহ কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে না পারে, সে জন্য সরকারের উচ্চপর্যায় থেকে পুলিশকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে দেশজুড়ে গোয়েন্দা তৎপরতাও বাড়ানো হয়েছে। পাশাপাশি তালিকা করা হচ্ছে বিএনপি নেতাদের। যে তালিকা অনুযায়ী ধারণা করা হচ্ছে ২০১৮ এর নির্বাচনকালীন সময়ের মতোই গ্রেপ্তার করা হবে বিএনপি নেতাদের। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে যে তালিকা তৈরী করা হয়ছিল, সেই তালিকাটি গোয়েন্দা সূত্রের মাধ্যমে আমাদের হাতে এসেছে। এই প্রতিবেদনের সাথে সিলেট বিভাগের জেলাওয়ারী…

Read More

বিতর্ক যেন পিছ ছাড়ছে না বাংলাদেশের ১৬তম সেনাপ্রধান (সাবেক) জেনারেল আজিজ আহমেদের। ক্ষমতার অপব্যবহার করে তার পলাতক সন্ত্রাসী, খুনি ও মাফিয়া ভাইদের আশ্রয়-প্রশ্রয়ে সীমাবদ্ধ থাকেননি, তার হাত দিয়ে ঘটে গেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর আরেকটি কলঙ্কিত ঘটনা। অভিবাসনের মারপ্যাঁচে ফেলে অন্যায়ভাবে দুই শতাধিক সামরিক কর্মকর্তাকে চাকরি ত্যাগে বাধ্য করেন তিনি। এবিষয়ে কিছু তথ্য-প্রমাণাদি স্টেটওয়াচের হাতে এসেছে। সেসব বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, কোনো কারণ ছাড়াই সঠিক প্রক্রিয়ায় এবং অনুমোদন সাপেক্ষে অভিবাসনে থাকা ২৩৩ জন সেনাকর্মকর্তাকে চাকরি ছাড়তে বাধ্য করেন জেনারেল আজিজ। ২০০৯ সালে বিডিআর হত্যাকাণ্ড ছিল বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সবচেয়ে কলঙ্কিত অধ্যায়। বিডিআরের পৈশাচিক হত্যাকাণ্ডে কেবল ৫৭ জন সামরিক কর্মকর্তাই প্রাণ হারাননি, সে সময়…

Read More

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে পদক ও পদোন্নতির বিজয়মালা এখন আর কর্মনিষ্ঠ, আত্মনিবেদিত ও  দায়িত্বশীল কোনো কর্মীর ভাগ্যে নেই। ক্ষমতাসীন আওয়ামী সরকার সেনাবাহিনীর ঘাড়ে নিজেদের পাঞ্জা এতটাই শক্ত ও নিশ্চিত করেছে যে, বাহিনীতে যে যতটা নিজেকে আওয়ামী নিবেদিত প্রমাণ করতে পারে পদক ও পদোন্নতি তার ভাগ্যেই সুপ্রসন্ন হয়। আর এজন্য বাহিনীতে গোপন এক প্রতিযোগিতা চলে। নিজেদের কাজে যতটা না মনোযোগ রাখছে তারচেয়ে বেশি রাখছে কে কতটা নিজেকে কাজে-কর্মে আওয়ামী ঘেঁষা কিংবা নিবেদিতপ্রাণ প্রমাণ করতে পারে। এমনি কিছু চাঞ্চল্যকর তথ্যের সন্ধান পাওয়া গেছে। সম্প্রতি ডিজিএফআই এর অন্যতম শীর্ষ কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সূফী মোঃ আতাউর রহমানের জন্যে বিশিষ্ট সেবা পদক (Distinguished Service Medal) সুপারশি করা…

Read More

বর্তমান সরকারের সময়ে বাংলাদেশে ব্যাংক লুটপাট যেন নিত্যনৈমত্তিক ঘটনায় পরিণত হয়েছে। নানা অনিয়ম আর দুর্নীতির প্রমাণ পেয়েও দর্শকের ভূমিকা ছাড়া দেশটির কেন্দ্রীয় ব্যাংকের যেন কিছুই করার নেই। সাম্প্রতিক একটি ঘটনা থেকেই বাংলাদেশ ব্যাংকের দুর্বলতার এমন চিত্র আবারো ফুটে উঠেছে। গত ২৬ জুলাই রাষ্ট্রখাতের জনতা ব্যাংকের তিনটি শাখা-জনতা ভবন কর্পোরেট শাখা, ঢাকা; লোকাল অফিস, ঢাকা; এবং সাধারণ বীমা ভবন কর্পোরেট শাখা, চট্টগ্রাম এর বৈদেশিক বাণিজ্য অর্থায়ন স্থগিত করে দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এই তিন শাখায় গুরতর অনিয়ম ও দুর্নীতির প্রমাণ পাওয়া যায়। এর মধ্যে অন্যতম হলো- ইডিএফ (এক্সপোর্ট ডেভেলপমেন্ট ফান্ড) লোনে অনিয়ম। দেশের রিজার্ভ থেকে সরাসরি অর্থ নিয়ে এই ফান্ড তৈরি করা…

Read More

ক্রিকেটের পর গলফ হতে পারতো বাংলাদেশের সবচেয়ে সম্ভবানময় একটি খেলা। ইতোমধ্যেই সিদ্দিকুর রহমানের মতো গলফাররা এশিয়ান ট্যুর পর্বে ২০১০ এবং ২০১২ সালে দুবার বিজয়ী হয়ে নিজেদের সামর্থ প্রমাণও করেছেন। গলফই একমাত্র মাধ্যম যেখান থেকে বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং অনুযায়ী সিদ্দিকুর সরাসরি অলিম্পিক গেমসে প্রবেশের সুযোগও লাভ করেছিলেন। গলফ নিয়ে আমাদের একটি উজ্জ্বল সম্ভাবনা ছিল, কিন্তু সামরিক বাহিনীর উচ্চাভিলাসী জেনারেলদের ভুল পরিকল্পনায় ধীরে ধীরে এর ভবিষ্যৎ প্রায় ম্লান হয়ে গিয়েছে। দু’একটি ছাড়া দেশের প্রায় সকল গলফ ক্লাব সেনানিবাস এলাকায় অবস্থিত হওয়ায় সেখানে সামরিক প্রভাব ও একচ্ছত্র কর্তৃত্ব সুস্পষ্ট। দেশের ২২টি গলফ ক্লাবই স্পোর্টস ক্লাব হিসেবে পরিচালিত এবং গলফ ফেডারেশনের অধীনস্থ। কিন্তু এই ক্লাবগুলোর সরকার বা ক্রীড়া মন্ত্রণালয় কর্তৃক…

Read More