Author: ডেস্ক রিপোর্ট

গণতন্ত্র কিন্তু প্রতিযোগিতায় ক্রমাগত পিছু হটছে। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ফিডম হাউসের ২০২২ সালের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বর্তমান বিশ্বের মাত্র ২০ শতাংশ মানুষ সম্পূর্ণ মুক্ত বা গণতান্ত্রিক দেশের বাসিন্দা। বস্তুত স্ক্যানডেনেভিয়ান কয়েকটি দেশ ছাড়া আর কেউই নিজেদের সম্পূর্ণ মুক্ত বলে দাবি করতে পারে না। এক সময় যে যুক্তরাষ্ট্রকে গণতান্ত্রিক বিশ্বের বাতিঘর বলা হতো, সেই যুক্তরাষ্ট্রের গণতান্ত্রিক ভবিষ্যৎ নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। ২০২৪ সালের নির্বাচনে সে দেশের গণতন্ত্রের বড় পরীক্ষা হবে। তবে এ পরীক্ষায় যেই জিতুক, আগামী দশকে বিশ্ব বেশ কয়েকটি কারণে বিশ্বের উপর ছড়ি ঘোরাবে চীন। চলুন এড় মধ্যে কয়েকটি দিক নিয়ে আলোচনা করা যাক। পারমাণবিক অস্ত্র যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা সদর দপ্তর পেন্টাগন…

Read More

শিক্ষকরা হচ্ছেন জাতির সবেচেয়ে সম্মানীয় ব্যক্তি। শিক্ষকদের হাতেই গড়ে ওঠেন প্রজন্মের মেধাবী ও প্রতিভাবান ব্যক্তিত্বরা। তাই পৃথিবীর সভ্যতার ইতিহাসের সূচনা থেকেই শিক্ষকতা পেশা সবার কাছে সমানহারে সম্মানীয় ও গুরুত্বপূর্ণ। সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পরম সম্মানীয় এই শিক্ষক মহোদয়দের কেউ কেউ লাঞ্ছনার শিকার হচ্ছেন। হচ্ছেন অপমানিত। একসময় যে শিক্ষাগুরুরা মান্যবর ছিলেন এলাকার মাতব্বর থেকে নিয়ে প্রতিটা মানুষের কাছে, সে শিক্ষকদেরকেই আজ স্থানীয় ক্ষমতাসীন ক্যাডার বা নেতাদের ভয়ে তটস্থ থাকতে হয়। চলতে হয় তাদের মর্জিমাফিক। নানা অনিয়ম ও দুর্নীতিতে বাধ্য করা হয় তাদেরকে। এরই ধারাবাহিকতায় মাদারীপুরে স্কুলের শিক্ষার্থীদের সামনে এক শিক্ষককে মারধরের ঘটনায় আওয়ামী লীগের উপজেলা কমিটির এক সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে…

Read More

বাংলাদেশে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বিপদজনক মাত্রায় চলে গেছে বলে মনে করছেন অনেক অর্থনীতিবিদ। রিজার্ভের ওপর চাপ কমাতে বিদ্যুতের লোডশেডিং করাসহ সাশ্রয়ী বেশ কিছু পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে যাতে জ্বলানি আমদানির খরচ নিয়ন্ত্রনে রাখা যায়। এর মধ্যেই বাংলাদেশ আইএমএফ’র ঋণ পাচ্ছে। প্রথম কিস্তিতে শর্তহীন হলেও পরবর্তী কিস্তিগুলো কিছু শর্ত পূরণ সাপেক্ষে সরকার পাবে। আমরা ধরে নিই এই ফেব্রুয়ারিতে প্রথম কিস্তি আর তার ৬ মাস পরে আরেকটি কিস্তি সরকার পেলো। অর্থাৎ সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী নির্বাচনের আগে আইএমএফ’র দুইটি কিস্তি থেকে প্রাপ্ত অর্থ হবে এক বিলিয়ন ডলারেরও কম। সরকার অল্প সময়ের মধ্যে বিশ্বব্যাংক, এডিবিসহ আরও কিছু প্রতিষ্ঠান থেকে ঋণ চাইছে। সরকার প্রত্যাশিত সব…

Read More

বর্তমানে বিশ্ব অর্থনীতির অন্যতম চালক ও বাহক হলো স্টক এক্সচেঞ্জ বা শেয়ারবাজার। পুঁজিবাদের বিকাশে শেয়ারবাজারের ভূমিকা সবচেয়ে বেশি। আর বিশ্বের প্রথম দিকের স্টক এক্সচেঞ্জের গল্প বলতে হলে প্রথমেই আসবে ডাচ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির নাম। এরাই প্রথম স্টক এক্সচেঞ্জ গঠন করেছিল। ডাচ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি ডাচ শিপিং শিল্পের বিকাশের জন্য দীর্ঘ সমুদ্র যাত্রায় ব্যস্ত থাকতো। আমস্টারডাম এবং জিল্যান্ড থেকে যাত্রা করা অনেক জাহাজই গন্তব্যে পৌছনোর আগেই দেউলিয়া হয়ে যেতো। এছাড়াও ডাচ বণিকরা বরাবরই একে অপরের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় লিপ্ত থাকতো। প্রতিদ্বন্দ্বী ব্যবসায়ীর পুরো যাত্রাকে ভণ্ডুল করার জন্য ডাচ বণিকরা নাবিকসহ জাহাজের সকল কর্মকর্তাদের ঘুষ দিতো। আর এই প্রবণতা ১৬০২ সাল পর্যন্ত চলেছিল।…

Read More

যুগ যুগ ধরেই মানুষ আর ভাইরাস-ব্যাক্টিরিয়া পাশাপাশি বাস করে চলেছে। মানুষ যতবারই নানারকম প্রতিষেধক আবিষ্কার করে, ওষুধ আবিষ্কার করে তাদের প্রতিহত করতে চেয়েছে, বারাবরই তারা জেনেটিক মিউটেশন ঘটিয়ে নতুন রূপে ফিরে ফিরে এসেছে। ভাইরাস-ব্যাক্টিরিয়া সঙ্গে মানুষের এই যুদ্ধ অপরিসীম। এখন প্রশ্ন হল যদি এমন কিছু মাইক্রোবসের সম্মুখীন আমাদের হতেই হয়, হাজার হাজার বছর আগে যাদের অস্তিত্ব এই বিশ্ব থেকে লুপ্ত হয়ে গিয়েছিল? বিজ্ঞানীরা বলছেন, এমন দিন কিন্তু আসতে চলেছে। আর বিশ্ব উষ্ণায়নের ফলেই বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া প্রাণঘাতী অতীতের অনেক মাইক্রোবস ফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারে। তবে সেই দিন আর দূরে নয়। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে ভূগর্ভস্থ প্রাচীন চিরহিমায়িত অঞ্চলের গলে যাওয়া…

Read More

বাংলাদেশে প্রতিদিন ১৩ থেকে ১৪ হাজার মেট্রিক টন ডিজেল ব্যবহার করা হয়ে থাকে। আমদানি করা ডিজেলের বড় অংশ পরিবহন খাত এবং কৃষিকাজে সেচের কাজে ব্যবহার হয়। জ্বালানি তেলের জন্য ২০২১ সালে প্রায় ২৩ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দিয়েছিল বাংলাদেশের সরকার। তবে এই বছর তেলের দাম বাড়িয়ে ভর্তুকি অনেকটাই সমন্বয় করা হয়েছে। তবে আইএমএফ বলছে, মূল্য নির্ধারণ পদ্ধতির সংস্কার করা হলে জ্বালানি তেলে ভর্তুকি দেয়ার প্রবণতা কমে আসবে। এখন সেই দিকেই হাঁটছে সরকার। যদিও বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম এই বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন অবস্থায় পৌঁছেছে। গতকাল ব্রেন্ট ক্রুড অয়েল বিক্রি হয়েছে ৮১.২০ ডলারে। সোমবার সরকার আরও সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে, এখন থেকে বিইআরসি…

Read More

মানুষ নিয়ে পৃথিবীতে যত ঘৃণ্য পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানো হয়েছে তার মধ্যে ইউনিট ৭৩১ সম্ভবত সবচেয়ে বেশি জঘন্য এবং ভয়ংকর। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের খলনায়ক হিসেবে সবসময়েই জার্মানির নাম নেয়া হয়। অনেক ক্ষেত্রেই বলা হয় রাশিয়া বা যুক্তরাষ্ট্রের ঋণাত্মক ভূমিকার কথা। জাপানের নাম সেখানে খুব কমই নেয়া হয়। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় এই জাপানেই গড়ে উঠেছিল ভয়ানক ইউনিট ৭৩১ নামে এক ক্যাম্প, যেখানে যুদ্ধবন্দী ও অন্যান্য সাধারণ নাগরিকদের নিয়ে চালানো হত অমানুষিক পরীক্ষা। ১৯৩১ সালে ইম্পেরিয়াল জাপানিজ আর্মি মাঞ্চুরিয়ায় আক্রমণ চালায়। এরপরই জাপানের সামরিক কর্মকর্তারা জায়গাটিকে বিভিন্ন বায়োলজিক্যাল ও কেমিকেল ওয়েপনের পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য উপযুক্ত স্থান হিসেবে মনে করা শুরু করেন। এ লক্ষ্যে হার্বিনে গোপন একটি…

Read More

বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, শুধু গত পাঁচ বছরেই দেশের ব্যাংকের বাইরে থাকা নগদ অর্থের পরিমাণ অন্তত ৭০ শতাংশ বেড়েছে। ২০১৮ সালের জুন শেষেও ব্যাংকের বাইরে থাকা নগদ অর্থের পরিমাণ ছিল ১ লাখ ৪০ হাজার ৯১৭ কোটি টাকা। চলতি বছরের সেপ্টেম্বর শেষে এ অর্থের পরিমাণ ২ লাখ ৩৯ হাজার ৯৯৮ কোটি টাকায় গিয়ে ঠেকেছে। এ হিসাবে পাঁচ বছরের ব্যবধানে ব্যাংকের বাইরে থাকা নগদ অর্থের পরিমাণ বেড়েছে ৯৯ হাজার ৮১ কোটি টাকা। অর্থনীতি বড় হলে অর্থের পরিমাণ ও চাহিদা বাড়বে এটিই স্বাভাবিক। কিন্তু বাংলাদেশে যে হারে নগদ অর্থের চাহিদা বাড়ছে সেটি অস্বাভাবিক। ব্যাংকের বাইরে নগদ অর্থ চলে যাওয়ায় কেন্দ্রীয় ব্যাংক নতুন টাকা…

Read More

অ্যাকশনএইডের ‘বাংলাদেশে অনলাইনে নারীর প্রতি সহিংসতা’ শীর্ষক এক গবেষণা প্রতিবেদন বলছে, চলতি বছর বাংলাদেশে অনলাইন ব্যবহারকারী নারীদের প্রায় ৬৩.৫১ শতাংশ সহিংসতার শিকার হয়েছেন৷ আগের বছরের তুলনায় যা ১৪ শতাংশ বেশি৷ এরমধ্যে সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে সবচেয়ে বেশি সহিংসতার শিকার হচ্ছেন তারা৷ এই হার ৪৭ শতাংশ৷ মেসেঞ্জারে হারটি ৩৫ শতাংশ৷ এছাড়া ইনস্টাগ্রাম, ইমো, হোয়াটসঅ্যাপ, ইউটিউবসহ অন্যান্য মাধ্যমেও সহিংসতার মুখে পড়েছেন নারীরা৷ গত ১১ থেকে ১৮ নভেম্বর ৫১৪ অনলাইন ব্যবহারকারী নারী তাদের এই গবেষণা জরিপে অংশ নেন৷ গবেষণায় বলা হয়, অনলাইনে নারীরা ১২ ধরনের সহিংসতার শিকার হচ্ছেন৷ সবচেয়ে বেশি ৮০ শতাংশ নারী অশ্লীল, ক্ষতিকর, যৌনতামূলক ও বিদ্বেষমূলক মন্তব্য পেয়ে থাকেন৷ ৫৩ শতাংশ নারীকে…

Read More

মৃত্যুই অবধারিত, মৃত্যুই প্রকৃতির নিয়ম। এমনটাই আমরা জেনে এসেছি, প্রত্যক্ষ করেছি আমরা। এখন যদি হঠাৎ করে আপনাকে বলা হয় এই উপলব্ধি আসলে সম্পূর্ণ মিথ্যা। মৃত্যু বলে আদতে কিছু নেই? হ্যাঁ, ঘাবড়ে যাওয়াই স্বাভাবিক। মজার ছলে আড্ডায় এমন প্রশ্ন করলে, উঠতে পারে হাসির রোলও। কিন্তু একদল গবেষকের অভিমত এমনটাই। মানুষ অমর। মৃত্যু বলে আদতে নাকি কিছু নেই। আশ্চর্য এই তত্ত্বের পিছনে রয়েছেন মার্কিন বিজ্ঞানী এবং চিকিৎসক রবার্ট ল্যানজা। ২০০৭ সালে ‘দ্য আমেরিকান স্কলার’ পত্রিকায় প্রকাশ পায় ল্যানজার একটি প্রবন্ধ—‘আ নিউ থিওরি অফ দি ইউনিভার্স’। প্রথমবারের জন্য ব্রহ্মাণ্ডের বর্ণনা দিতে সেই প্রবন্ধে ‘বায়োসেন্ট্রিজম’ শব্দবন্ধটির ব্যবহার করেন তিনি। ল্যানজা পদার্থবিজ্ঞান, গণিত বা রসায়নের…

Read More