Trial Run

পশ্চিমবঙ্গে তৃতীয়বারের মত ক্ষমতায় আসছে মমতার সরকার

বুথফেরত জরিপ

করোনায় দ্বিতীয় ঢেউয়ে পর্যদুস্ত ভারত। এরই মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে চলছে বিধানসভা নির্বাচন। মহামারির প্রকোপের মধ্যেও বৃহস্পতিবার অষ্টম দফার ভোটের মধ্য দিয়ে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য বিধানসভার নির্বাচন শেষ হয়েছে। নির্বাচন শেষ হওয়ার পরই বুথফেরত জরিপ আসতে শুরু করেছে। তাতে তৃতীয়বারের মতো মমতার তৃণমূলের সরকার গড়ার আভাস মিলছে।

বৃহস্পতিবার ভোট হওয়ার পর বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম ও সংস্থার উদ্যোগে পরিচালিত বুথফেরত জরিপের ফল প্রকাশ শুরু হয়েছে। বেশিরভাগ বুথ ফেরত জরিপে এগিয়ে রয়েছে তৃণমূল। তবে কয়েকটি জরিপে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ইঙ্গিতও পাওয়া গেছে। আর জন কি বাত পরিচালিত জরিপে বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে সরকার গঠন করতে পারে উঠে এসেছে।

এনটিডিভির জরিপে তৃণমূল পেতে পারে ১৬৪ থেকে ১৭৪ আসন

এনটিডিভির সমীক্ষা অনুসারে, পশ্চিমবঙ্গে আবারও সরকার গড়তে চলেছে তৃণমূল। এবার তৃণমূল পেতে পারে ১৬৪ থেকে ১৭৪ আসন, বিজেপি পেতে পারে ১০৫ থেকে ১১৫। অন্যান্যরা পেতে পারে ১ থেকে ১৫টি আসন।

তৃণমূলকে এগিয়ে রাখছে পি মার্কস

পি মার্কসের বুথফেরত সমীক্ষায় পাওয়া বিধানসভার ফলের যে ইঙ্গিত পাওয়া গেছে তাতে দেখা গেছে, তৃণমূল পেতে পারে ১৫২ থেকে ১৭২ আসন। বিজেপি পেতে পারে ১১২ থেকে ১৩২ আসন। জোটে পেতে পারে ১০ থেকে ২০ আসন।

সিএনএন নিউজ ১৮-এর জরিপে ক্ষমতা ধরে রাখবে তৃণমূল

সিএনএন নিউজ ১৮-এর বুথফেরত সমীক্ষার ফল অনুসারে, পশ্চিমবঙ্গে আবারও ক্ষমতায় আসতে চলেছে তৃণমূল, পেতে পারে ১৬২ আসন। বিজেপি পেতে পারে ১১৫ আসন। জোট পেতে পারে ১৫ আসন।

বিজেপির জয়ের ইঙ্গিত জন কি বাতের জরিপে

জন কি বাতের বুথ ফেরত জরিপের ফলাফলে বলা হয়েছে, এবার বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূল পেতে পারে ১০৪ থেকে ১২১ আসন। বিজেপি পেতে পারে ১৬২ থেকে ১৮৫ আসন। জোট পেতে পারে ৩-৯টি আসন।

এবিপি-সিএনএক্সের জরিপে এগিয়ে তৃণমূল

এবিপি-সিএনএক্সের বুথফেরত জরিপের ফলাফলেও এগিয়ে রয়েছে তৃণমূল। এতে বলা হয়েছে, ১৫৭ থেকে ১৮৫ আসন নিয়ে সরকার গড়তে চলেছে তৃণমূল, বিজেপি পেতে পারে ৯৬-১২৫টি আসন, জোট পেতে পারে ৮ থেকে ১৬ আসন।

টাইমস নাউয়ের জরিপে জিতছে তৃণমূল

টাইমস নাউ-সি ভোটারের জরিপের ফল অনুসারে, তৃণমূল পেতে পারে ১৫৮টি আসন, বিজেপি পেতে পারে ১১৫টি আসন, জোট পেতে পারে ১৯টি আসন।

হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ইঙ্গিত রিপাবলিকের

রিপাবলিকের বুথ ফেরত জরিপের ফল অনুসারে, তৃণমূল পেতে পারে ১২৮-১৪৮টি আসন। বিজেপি পেতে পারে ১৩৮-১৪৮টি আসন। অন্যান্যরা পেতে পারে ৬টি থেকে ৯টি আসন।

এবিপি-সি জরিপে তৃণমূল

এবিপি-র বুথ ফেরত জরিপের ফলাফলে ইঙ্গিত পাওয়া গেছে, পশ্চিমবঙ্গে সরকার গড়তে চলেছে তৃণমূল। তৃণমূলের ভোটের হার হতে পারে ৪২ শতাংশ।

তিন যুগের বাম শাসনের অবসান ঘটিয়ে ২০১১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেস পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতায় বসে। ২০১৬ সালের নির্বাচনেও ক্ষমতা ধরে রাখে তৃণমূল।

২০১৬ সালের নির্বাচনে ২৯৪ আসনের মধ্যে তৃণমূল পেয়েছিল ২১১টি আসন। বিজেপি সেবার জিতেছিল মাত্র ৩টি আসনে। আর কংগ্রেস ৪৪টি এবং বাম ফ্রন্ট ৩২টি আসন জিতেছিল।

তবে এবার মমতার জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে আসে কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন বিজেপি। এবারই মমতাকে ক্ষমতা থেকে হটানোর ঘোষণা দিয়ে নামেন বিজেপি নেতারা। মহামারীর মধ্যেও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী থেকে শুরু করে বিজেপির শীর্ষ নেতারা বারবার পশ্চিমবঙ্গ সফর করেন।

ভারতের পাঁচ রাজ্যে নির্বাচন শেষ হয় বৃহস্পতিবার। আসামে ২৭ মার্চ থেকে ভোট হয়েছে তিন দফায়। এ ছাড়া তামিলনাড়ু, কেরল ও পুদুচেরিতে এক দফায় ভোট প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে ৬ এপ্রিল। এরপর শুরু হয় গণনা। ফল প্রকাশ করা হবে রোববার।

এসডব্লিউ/এমএন/কেএইচ/২১৩৮ 


State watch সকল পাঠকদের জন্য উন্মুক্ত সংবাদ মাধ্যম, যেটি পাঠকদের অর্থায়নে পরিচালিত হয়। যে কোন পরিমাণের সহযোগিতা, সেটি ছোট বা বড় হোক, আপনাদের প্রতিটি সহযোগিতা আমাদের নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে ভবিষ্যতে বড় অবদান রাখতে পারে। তাই State watch-কে সহযোগিতার অনুরোধ জানাচ্ছি। 

ছড়িয়ে দিনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আপনার মতামত জানানঃ