Trial Run

তানজানিয়ার প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট সামিয়া সুলুহু হাসান

ছবি: সংগৃহীত

প্রথমবারের মতো নারী প্রেসিডেন্ট পেল আফ্রিকার দেশ তানজানিয়ায়। দেশটির প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট হিসেবে সামিয়া সুলুহু হাসান স্থানীয় সময় শুক্রবার শপথ নিয়েছেন। দেশটির প্রেসিডেন্ট জন মাগুফুলির আকষ্মিক মৃত্যুর পর পরই দলীয় সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে প্রেসিডেন্ট হলেন সামিয়া।

তানজানিয়ার ষষ্ঠ প্রেসিডেন্ট হিসেবে দারুস সালামের এক অনুষ্ঠানে সামিয়া শপথ গ্রহণ করেন। সংবিধান অনুযায়ী, তিনি ২০২৫ সাল পর্যন্ত মাগুফুলির দ্বিতীয় মেয়াদের পাঁচ বছর দায়িত্ব পালন করবেন।

শুক্রবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টার দিকে শপথ গ্রহণের পর সামিয়া বলেন, ‘আপনাদের সঙ্গে কথা বলতে এটি আমার জন্য একটি ভালো দিন না কারণ আমার হৃদয়ে একটি ক্ষত রয়েছে। আজ আমি একটি শপথ নিয়েছি যা আমার জীবনে নেয়া সকল শপথের থেকে ভিন্ন। সেগুলো আনন্দের সঙ্গে নেয়া হয়েছিল। আজ আমি শোকের মধ্য দিয়ে দফতরের সর্বোচ্চ শপথ নিলাম।’

২০১৫ সালে মাগুফুলির রানিং মেট হিসেবে প্রথম তিনি ভাইস-প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন। গত বছর পুনরায় তিনি মাগুফুলির সঙ্গে নির্বাচিত হন।

সূত্র মতে, নতুন ভাইস প্রেসিডেন্ট নিয়োগ দিতে সামিয়াকে দলের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে। বিশ্লেষকেরা বলছেন, চামা চা মাপিনদুজি দলে মাগুফুলির মিত্র হিসেবে পরিচিত নেতাদের চাপের মুখে পড়তে পারেন সামিয়া।

ইথিওপিয়ার প্রেসিডেন্ট সাহলে-ওয়ার্ক জেউদের পর সামিয়া দ্বিতীয় কোনো নারী যিনি বর্তমানে আফ্রিকার কোনো দেশের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। সাহলে-ওয়ার্ক জেউদের দায়িত্ব মূলত আনুষ্ঠানিক। 

মৃদুভাষী সামিয়ার জন্ম জানজিবার দ্বীপে। তানজানিয়ার বাইরে সামিয়া পরিচিতি এতদিন তেমন একটা ছিল না। বুধবার রাতে রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে মাগুফুলির মৃত্যুর কথা জানানোর মাধ্যমে বহির্বিশ্বের অনেকে তার সম্পর্কে জানতে পারে।

৬১ বছর বয়সী সামিয়াকে তানজানিয়ায় ‘মামা সামিয়া’ (মা সামিয়া) নামেও ডাকা হয়। দেশটির সংস্কৃতি অনুযায়ী, শ্রদ্ধা প্রকাশ করতে তাকে এই নামে ডাকা হয়। 

তানজানিয়ার সংবিধান অনুযায়ী, নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে হাসানের শপথ নেওয়ার কথা এবং মাগুফুলির পাঁচ বছর মেয়াদের বাকি সময় তারই দায়িত্ব পালন করার কথা। প্রেসিডেন্ট হিসেবে গত বছর চলতি মেয়াদ শুরু করেছিলেন মাগুফুলি।

প্রেসিডেন্ট জন মাগুফুলির মৃত্যু

রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিভেশনে জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া বক্তৃতায়  দেশটির ভাইস প্রেসিডেন্ট সামিয়া সুলুহু হাসান জানান, বুধবার দেশটির বৃহত্তম শহর দার এস সালামের একটি হাসপাতালে হার্টের জটিলতায় তানজানিয়ার প্রেসিডেন্ট জন মাগুফুলি মারা গেছেন। তার বয়স হয়েছিল ৬১ বছর।  

তিনি বলেন, “অতি দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি আজ আমাদের সাহসী নেতা, রিপাবলিক অব তানজানিয়ার প্রেসিডেন্ট জন পোমবে মাগুফুলিকে হারিয়েছি আমরা।”

বিবিসি জানিয়েছে, মাগুফুলিকে দুই সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে প্রকাশ্যে দেখা যায়নি, এ সময় তার শারীরিক অবস্থা নিয়ে গুজব ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে।

তিনি কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছেন বলে গত সপ্তাহে বিরোধী দলীয় রাজধানীতিকরা জানিয়েছিলেন, কিন্তু তা নিশ্চিত করা হয়নি।

করোনাভাইরাস নিয়ে সংশয়ে থাকা আফ্রিকার অন্যতম বিশিষ্ট ব্যক্তি ছিলেন মাগুফুলি। ভাইরাসটি ঠেকাতে তিনি প্রার্থনা ও ভেষজের বাষ্প গ্রহণের থেরাপি নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন। 

প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে রাষ্ট্রীয়ভাবে ১৪ দিন ধরে শোক পালন করা হবে এবং এ সময় জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত থাকবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

যদিও ২৭ ফেব্রুয়ারি তাকে শেষবারের মতো প্রকাশ্যে দেখা গেলেও প্রেসিডেন্ট ‘শারীরিকভাবে সুস্থ আছেন এবং কঠিন পরিশ্রম করছেন’ বলে গত সপ্তাহে দাবি করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী কাসিম মাজালিওয়া।

এসডব্লিউ/এমএন/এসএস/২২১৮ 

ছড়িয়ে দিনঃ
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

আপনার মতামত জানানঃ