Trial Run

বিদ্যুতের তার থেকে ঘরে আগুন, একই পরিবারের ৪জন নিহত

ছবি : রাইজিংবিডি

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ ইউনিয়নের পূর্বাচলের ১১ নম্বর সেক্টর কুমারটেক গ্রামে ডেসকো ও পবিস-২ এর ১১ হাজার ভোল্টের দুটি বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে উদ্ভব আগুনে বসতঘর পুড়ে  গেছে। এতে একই পরিবারের চারজন নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে ঘটনাস্থলে তিনজন এবং মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজন মারা গেছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। এদের মধ্যে দুইজন প্রতিবন্ধি ছিলেন বলে জানা যায়। গতকাল শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) রাত পৌনে ৯টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- বাড়ির মালিক মাছুম মিয়া, তার স্ত্রী সীমা আক্তার ও তাদের ২ প্রতিবন্ধী শিশু সন্তান মো. রহমতউল্লাহ ও মো. আব্দুল্লাহ।

পূর্বাচল মাল্টিপারপাস ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার উদ্দীপন ভক্ত জানান, রাত পৌনে ৯টার দিকে আমাদের পূর্বাচল মাল্টিপারপাস ফায়ার স্টেশনের সন্নিকটে কুমারটেক এলাকায় বিদ্যুতের ১১ হাজার ভোল্টের লাইন ছিঁড়ে পড়লে আগুনের সূত্রপাত হয়। এসময় ওই লাইনের নিচে বসবাস করা মাছুম মিয়ার ঘরে আগুন লেগে মুহূর্তেই সব পুড়ে যায়। এসময় ঘরে থাকা বাড়ির মালিক মাছুম মিয়া ও তার প্রতিবন্ধী দুই শিশু সন্তানসহ তিন জন ঘটনাস্থলেই দগ্ধ হয়ে প্রাণ হারান। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে পূর্বাচল ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট কাজ করে ২০ মিনিটের মধ্যে আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। এ সময় ঘর থেকে মাছুমের স্ত্রী সীমাকে গুরুতর দগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসিনুল কাদের জানান, বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে বসতঘরে ধরে যাওয়া আগুনে ঘটনাস্থলেই বাড়ির মালিক মাছুম মিয়া ও তার দুই শিশু সন্তানের মৃত্যু হয়। হাসপাতালে নেওয়ার পথে মাছুমের স্ত্রীও মারা যান বলে জানান তিনি।

ওসি মহসিনুল কাদের বলেন, বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে টিনের চালের ঘরে আগুনে লেগে একই পরিবারের চারজনের মৃত্যু হয়েছে। নিহত মাসুম মিয়ার দুই ছেলে ও স্ত্রী প্রতিবন্ধী ছিলেন।লাশ সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাহ্ নুশরাত জাহান বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, ডেসকোর হাই ভোল্টেজের তার ছিঁড়ে পল্লী বিদ্যুতের তারের উপর পড়ে। সেখান থেকে তারগুলো ঘরের চালে পড়ে অগ্নিকাণ্ড ঘটে। এ দুর্ঘটনায় চারজনের প্রাণহানি হয়েছে।’

সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, বিদ্যুতের তার থেকে প্রাণহানির ঘটনা দিনদিন বেড়ে চলেছে। বিদ্যুতের তারের অযাচিত বিশৃঙ্খল অবস্থায় থাকে যা অধিকাংশ ক্ষেত্রেই বিপজ্জনক ঠেকে। বৈদ্যুতিক তার নিয়ে সম্প্রতি কর্তৃপক্ষ হতাশা প্রকাশ করলেও এখনো যুগোপযোগী কোনো পরিকল্পনায় আসতে পারেনি। রাজধানীতে তারের যে সার্বিক পরিস্থিতি এতে সাধারণ পথচারী থেকে বাসীন্দারাও আতঙ্কে আছেন কখন যেন তারে পৃষ্ট হয়ে অথবা তার থেকে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। বিদ্যুতের তার নিয়ে সরকারের এখনই ভাবতে হবে বলে মনে করেন তারা। নয়তো দেশে এরকম ঘটনা বাড়তেই থাকবে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন।

এসডব্লিউ/এমএন/কেএইচ/১৪০৭ 

ছড়িয়ে দিনঃ
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

আপনার মতামত জানানঃ