Trial Run

আইনপ্রয়োগের চিত্র ও গণমাধ্যম: ১৪ জানুয়ারি ২০২১

স্টেটওয়াচ রিসার্চ নেটওয়ার্ক কাজ করছে বাংলাদেশে আইনপ্রয়োগের সার্বিক চিত্র তুলে ধরার পাশাপাশি মতপ্রকাশের স্বাধীনতা সংক্রান্ত বাস্তবতা নিয়ে। এর অংশ হিসেবে স্টেটওয়াচ নিউজে আমরা প্রতিদিনকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত খবরাখবরগুলো সংক্ষেপে তুলে ধরার উদ্যোগ নিয়েছি। প্রতিদিন নিম্নোক্ত মাধ্যমসমূহ থেকে সংবাদগুলো সংগ্রহ ও তা নথিবদ্ধ করছে আমাদের কর্মীরা: প্রথম আলো, কালের কণ্ঠ, যুগান্তর, সমকাল, নয়া দিগন্ত, ইত্তেফাক, দেশ রূপান্তর, ডেইলি স্টার, নিউ এজ, দ্য ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেস, বাংলা ট্রিবিউন, বিডিনিউজ২৪ ডটকম, আমাদের সময়, মানবজমিন। আমরা আশা করি, এই প্রতিবেদন নিয়মিত প্রকাশের মাধ্যমে জনগণের তথ্যপ্রাপ্তির অধিকার আরো শক্তিশালী হবে।

১৪ জানুয়ারি ২০২১, বুধবার, ৩০ পৌষ ১৪২৭, পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত
আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত নির্বাচিত  খবরের সার-সংক্ষেপ।

মাদকসেবীদের জায়গা পুলিশ বাহিনীতে হবে না: ডিএমপি কমিশনার

প্রথম আলো
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

মাদকসেবীদের কোনো জায়গা পুলিশ বাহিনীতে হবে না বলে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম। আজ বুধবার রাজারবাগ পুলিশ মিলনায়তনে আয়োজিত ডিএমপির মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। সভায় উপস্থিত পুলিশ কর্মকর্তাদের উদ্দেশে ডিএমপি কমিশনার বলেন, শুধু পাহারা দিয়ে অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করা যাবে না। বিভিন্ন অপরাধের সঙ্গে যারা জড়িত, তাদের গ্রেপ্তার করতে হবে, আইনের আওতায় এনে বিচার নিশ্চিত করতে হবে।

শফিকুল ইসলাম বলেন, বিট পুলিশিং কার্যক্রমকে আরও বেগবান করতে হবে। এর মাধ্যমে প্রচুর তথ্য পাওয়া যায়, যা সমাজে অপরাধ নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। তিনি বলেন, মাদক নিয়ন্ত্রণে আরও বেশি তৎপর হতে হবে। মাদক শুধু উদ্ধার করলে হবে না, এর রুট পর্যন্ত যেতে হবে। প্রযুক্তিগত পদ্ধতি প্রয়োগের পাশাপাশি ম্যানুয়েল সোর্স নিয়োগের মাধ্যমে বস্তিগুলো মাদকমুক্ত করতে হবে। মাদকসেবীদের চিহ্নিত করে তাদের মা-বাবা, অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলতে হবে। তারা যেন সুপথে ফিরে আসতে পারে, তার জন্য কাজ করতে হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

 

পুলিশের পোশাক বদলের পরিকল্পনা

দেশ রুপান্তর
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

বাংলাদেশ পুলিশের পোশাক একসময় ছিল খাকি, তা বদলেছে অনেক আগেই। পরে মহানগর ও জেলা পর্যায়ে দুই রংয়ের পোশাক দেওয়া হয়। এছাড়া পুলিশের বিভিন্ন ইউনিট ও ব্যাটালিয়নভেদেও রয়েছে পোশাকের ভিন্নতা। তবে এবার শুধু মহানগর (মেট্রোপলিটন) পুলিশ ছাড়া সব ইউনিটের পোশাক একই রংয়ের করার পরিকল্পনা চলছে। বাহিনীর মহাপরিদর্শকের (আইজিপি) কাছ থেকে এ সংক্রান্ত পরামর্শ পেয়ে ইতিমধ্যে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা কাজও শুরু করে দিয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে পুলিশ সদর দপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা কয়েক দফা বৈঠক করেছেন। পোশাক পরিবর্তনের পরিকল্পনার অংশ হিসেবে তারা বিশ্বের বিভিন্ন দেশের পুলিশের পোশাকের নমুনা সংগ্রহ করছেন বলে জানা গেছে।

নতুন পোশাকে হাতের ডান বা বাম পাশের কনুইয়ের উপর রেঞ্জ, জেলা বা ইউনিটের মনোগ্রাম অথবা নাম সংযুক্ত রাখার চিন্তাভাবনা রয়েছে বলে পুলিশ সদর দপ্তরের একাধিক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা দেশ রূপান্তরকে জানিয়েছেন। এদিকে পুলিশের সব ইউনিটের পোশাক একই রংয়ের করার পরিকল্পনা চললেও বাহিনীটির বিশেষায়িত অঙ্গ র‌্যাবের পোশাক আগের মতো থাকার সম্ভাবনাই বেশি। যদিও এখনো এ সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়নি।

পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, নতুন পোশাকের কাপড় হবে খুবই উন্নতমানের। বাহিনীর নিজস্ব গার্মেন্টস বা টেক্সটাইল মিল তৈরি করে সেখান থেকে নতুন পোশাকের কাপড় কেনার কথা ভাবা হচ্ছে। এজন্য পুলিশ ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের মাধ্যমে গাজীপুরে একটি গার্মেন্টস অথবা টেক্সটাইল মিল তৈরির পরিকল্পনা করছে পুলিশ সদর দপ্তর। আর এই বিষয়টি দেখভালের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ঢাকা রেঞ্জের উপ-মহাপরিদর্শককে (ডিআইজি)। পুলিশের নিজস্ব ছাপাখানা গড়ারও পরিকল্পনা করা হচ্ছে। এ বিষয়টি দেখভাল করতে বলা হয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনারকে। এছাড়া জুতাসহ অন্যান্য সরঞ্জামও একই উৎস থেকে কেনা বা সংগ্রহ করতে পারবেন পুলিশ সদস্যরা।

 

মুক্তিযোদ্ধাকে পেটানোর অভিযোগ, সালথার ওসিকে প্রত্যাহার

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

মুক্তিযোদ্ধাকে গালাগালসহ লাঠিপেটা করার অভিযোগ ওঠায় ফরিদপুরের সালথা থানার ওসি মোহাম্মাদ আলী জিন্নাহকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। জেলার পুলিশ সুপার মো. আলিমুজ্জামান জানান, বুধবার তাকে থানা থেকে প্রত্যাহার করে জেলা পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়। তবে পুলিশ অভিযোগের সত্যতা পায়নি বলে তিনি দাবি করেছেন। গত শুক্রবার বিকালে সালথা থানার খলিশাপট্টি গ্রামে দুই দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষ ঠেকাতে গিয়ে পুলিশ ওই গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মোশারফ হোসেনকে লাঠিপেটাসহ গালাগাল করে বলে অভিযোগ ওঠে। ওসি মোহাম্মদ আলী জিন্নাহকে প্রত্যাহারের দাবি জানান মুক্তিযোদ্ধারা। উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশও করেন তারা। একই দাবিতে মঙ্গলবার নগরকান্দা উপজেলার মুক্তিযোদ্ধারাও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন। ঘটনা তদন্তে শনিবার জেলা পুলিশ একটি কমিটি গঠন করে এবং মঙ্গলবার রাতে কমিটি প্রতিবেদন দেয় বলে পুলিশ জানিয়েছে।

পুলিশ সুপার সাংবাদিকদের বলেন, মুক্তিযোদ্ধাকে লাঠিপেটার ঘটনায় ওসির বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে, তদন্ত করে তার প্রমাণ পাওয়া যায়নি। এর পরও স্থানীয় পরিস্থিতি বিবেচনা করে তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

 

জামিন পেলেন সেই নারী বাউল শিল্পী

যুগান্তর
বিভাগ:  ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট

 

পালাগানে আল্লাহকে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে করা মামলায় বাউল শিল্পী রিতা দেওয়ান জামিন পেয়েছেন। বুধবার আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করলে সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আসসামছ জগলুল হোসেন তার জামিন মঞ্জুর করেন। এর আগে গত ২ ডিসেম্বর একই আদালত রিতার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ান জারি করেন।

গত ৩১ জানুয়ারি টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতি থানাধীন ধলারটেঙ্গর গ্রামে একটি পালাগানের আসরে প্রতিপক্ষকে আক্রমণ করতে গিয়ে রিতা দেওয়ান মহান আল্লাহকে নিয়ে রুচিহীন মন্তব্য করেন। পরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হয়। অনেকে রিতা দেওয়ানের শাস্তি দাবি করেন।এরপর ২ ফেব্রুয়ারি রিতা দেওয়ানের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন আইনজীবী ইমরুল হাসান। বাদীর জবানবন্দি গ্রহণের পর ট্রাইব্যুনালের বিচারক অভিযোগের বিষয়ে পিবিআইকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

গত বছর ২০ অক্টোবর তিনজনকে অভিযুক্ত করে পিবিআই প্রতিবেদন দাখিল করে। এরপর গত ২ ডিসেম্বর ওই তিনজনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন ট্রাইব্যুনাল। বাকি দুজন হলেন- শাজাহান ও ইকবাল। গতকাল আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন পেলেন এ নারী বাউল।

 

Baul singer Rita Dewan gets bail

New Age
Category : Digital security Act

A Dhaka tribunal on Wednesday granted ad interim bail to Baul singer Rita Dewan in a case filed under the Digital Security Act over hurting religious sentiment.

Dhaka Cyber Tribunal Judge Mohammad Ash Shams Jaglul Hossain granted Rita bail until January 27 after she had surrendered before the tribunal, bench officer Shamim Al Mamun said.

The court earlier issued an arrest warrant against Rita and two others on December 2, 2020 accepting the probe report of the case. Imrul Hasan, a member of the Dhaka Lawyers’ Association, filed the case against the three people on February 2, 2020, with the cyber tribunal.

According to the case statement, Rita made derogatory comments on Allah at a music programme at Dholartengor of Kalihati in Tangail. The comments went viral on social media.

Two other accused are Shahjahan and Md Iqbal, the owners of YouTube channels Kokil TV and Channel Rupali HD, respectively.

 

AL, police dive into blame game

New Age
Category: State Force

The Jashore Awami League and police blamed each other over the alleged torture and arrest of Awami League town unit general secretary Mahmud Hasan Bipu and the assault on police constable Imran Hossain. Awami League leaders said that Mahmud Hasan was reportedly picked up and tortured by the police on charge of beating up Imran, while police officers said that Mahmud and his associates abducted Imran and tortured him.

Constable Imran was reportedly beaten up by some Awami League leaders and activists following an altercation on Monday evening. Police said, the leaders picked Imran up and took to a local club, where he was allegedly assaulted and tortured by the leaders. Later police, on information, raided the club and rescued the constable. A case was filed with Jashore Kotwali Police Station at about 8:00pm on Monday by Imran against four Awami League leaders and 20-25 unidentified people for allegedly kidnaping and torturing him, Moniruzzaman, officer in-charge of Kotwali Police Station, told New Age.

Police arrested Mahmud and three other Awami League activists on early Tuesday pertaining to a case filed against them on charge of beating up Imran at the Shahid Minar area in the town on Monday night. Mahmud, however, was released about 19 hours after his arrest and the other activists were sent to judicial custody.

ছড়িয়ে দিনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আপনার মতামত জানানঃ