Trial Run

আইনপ্রয়োগের চিত্র ও গণমাধ্যম: ৯ জানুয়ারি ২০২১

স্টেটওয়াচ রিসার্চ নেটওয়ার্ক কাজ করছে বাংলাদেশে আইনপ্রয়োগের সার্বিক চিত্র তুলে ধরার পাশাপাশি মতপ্রকাশের স্বাধীনতা সংক্রান্ত বাস্তবতা নিয়ে। এর অংশ হিসেবে স্টেটওয়াচ নিউজে আমরা প্রতিদিনকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত খবরাখবরগুলো সংক্ষেপে তুলে ধরার উদ্যোগ নিয়েছি। প্রতিদিন নিম্নোক্ত মাধ্যমসমূহ থেকে সংবাদগুলো সংগ্রহ ও তা নথিবদ্ধ করছে আমাদের কর্মীরা: প্রথম আলো, কালের কণ্ঠ, যুগান্তর, সমকাল, নয়া দিগন্ত, ইত্তেফাক, দেশ রূপান্তর, ডেইলি স্টার, নিউ এজ, দ্য ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেস, বাংলা ট্রিবিউন, বিডিনিউজ২৪ ডটকম, আমাদের সময়, মানবজমিন। আমরা আশা করি, এই প্রতিবেদন নিয়মিত প্রকাশের মাধ্যমে জনগণের তথ্যপ্রাপ্তির অধিকার আরো শক্তিশালী হবে।

৯ জানুয়ারি ২০২১, শনিবার, ২৫ পৌষ ১৪২৭, পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত
আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত নির্বাচিত  খবরের সার-সংক্ষেপ

ক্র্যাবের এজিএম
পুলিশ বাহিনীতে শুদ্ধি অভিযান চলছে : আইজিপি

যুগান্তর
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বলেছেন, পুলিশ বাহিনীকে দুর্নীতিমুক্ত করতে শুদ্ধি অভিযান চলছে। অর্থনীতিসহ দেশ সব দিকেই এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের এ অগ্রযাত্রায় আমাদের সব ক্ষেত্রেই শুদ্ধতা দরকার। তাই আমরা ঘরের ভেতর থেকেই শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছি। চেষ্টা করছি, আগে নিজেদের ঘরকে শুদ্ধ করতে, দুর্নীতিমুক্ত করতে। আমাদের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (ক্র্যাব) বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। আইজিপি বলেন, যেসব পুলিশ দায়িত্বের ঊর্ধ্বে থেকে অপকর্ম করে তাদের বিরুদ্ধে আমার অবস্থান নিষ্ঠুর। এ বিষয়ে আমাদের মনোভাব অত্যন্ত কঠোর। বাংলাদেশ পুলিশের লক্ষ্য হচ্ছে অভ্যন্তরীণ আইনশৃঙ্খলা ব্যত্যয়ে শূন্য সহিষ্ণুতা। কোনো পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ পাওয়া গেলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। আইজিপি বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে আমরা কঠোরভাবে কাজ করছি। পুলিশের মধ্যে যদি কোনো মাদকসেবী থাকে তাহলে তাকে বাহিনী থেকে বের করে দেয়া হচ্ছে। পুলিশের সব পর্যায়ের সদস্যদের ডোপ টেস্ট করা হচ্ছে। আমরা আমাদের ঘর পরিচ্ছন্ন করতে চাই। কেউ মাদকসেবী না; কিন্তু মাদকের সঙ্গে জড়িত, এমন পুলিশ সদস্যদের চিহ্নিত করে চাকরিচ্যুত করা হচ্ছে। এক্ষেত্রেও শূন্য সহিষ্ণুতা বাস্তবায়ন করতে চাই। তিনি বলেন, শুরুতে মোটিভেশনাল অ্যাকটিভিটিস এবং ডিসিপ্লিন নিয়ে কাজ করছি। পুলিশে ‘ব্রুটালিটি’ বা নিষ্ঠুরতা আমরা চাই না। আমরা চাই না পত্রপত্রিকায় পুলিশের নিষ্ঠুরতা নিয়ে খবর ছাপা হোক। আমরা নেতিবাচক খবর হতে চাই না। তিনি বলেন, পুলিশের কাছে অসংখ্য আইনগত ক্ষমতা রয়েছে। তাহলে কেন পেশিশক্তি ব্যবহার করতে হবে। মাথা, বিবেক ও আইনের শক্তি প্রয়োগ করতে হবে। রাষ্ট্র পুলিশকে অসংখ্য আইন প্রয়োগের ক্ষমতা দিয়ে রেখেছে।

সাংবাদিকরা কোটি কোটি মানুষ মোটিভেটেড করতে পারে উল্লেখ করে আইজিপি বলেন, আপনারা জনমত গড়ে তোলেন, জনমত গড়ে তোলা অনেক কঠিন কাজ। সবাই তা করতে পারেন না। যেহেতু আপনারা জনমত গড়ে তুলতে সক্ষম, মুহূর্তের মধ্যে কোটি কোটি মানুষের হৃদয়ে প্রবেশ করতে পারেন, সেজন্য আপনাদের কলমের যে শক্তি সে শক্তি সম্পর্কে পুরোপুরি সচেতন থাকবেন এটাই আমরা প্রত্যাশা করি।

মাদক গ্রহণ ও জুয়া খেলার অভিযোগে ছয় পুলিশ সাসপেন্ড

ইত্তেফাক
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

মদ খেয়ে জুয়া খেলার অভিযোগে রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) দুই জন এএসআই ও চার জন কনস্টেবলসহ মোট ছয় জনকে সাময়িক বরখাস্ত (সাসপেন্ড) করা হয়েছে। আরএমপির কমিশনার মো. আবু কালাম সিদ্দিক স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে গতকাল শুক্রবার তাদের সাসপেন্ড করা হয়। আদেশে বলা হয়, তাদের এমন কার্যকলাপ বিভাগীয় নিয়ম-শৃঙ্খলার পরিপন্থি ও অসদাচরণের শামিল। তারা সবাই পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত থাকবেন এবং বিধি মোতাবেক খোরপোষ ভাতা প্রাপ্য হবেন।

বরখাস্তকৃতরা হলেন, এএসআই (সশস্ত্র) মো. আব্দুল বারেক, এএসআই মো. মিজানুর রহমান, নায়েক মো. আফজাল সরকার, কনস্টেবল মো. ফরহাদ হোসেন, মো আব্দুস সালাম ও মো. সাহেদ আলী। পুলিশ সূত্র জানায়, গত বুধবার দিবাগত রাত প্রায় দেড়টার দিকে সোর্সের মাধ্যমে খবর পেয়ে আরএমপির বোয়ালিয়া মডেল থানার একদল পুলিশ নগরীর বিয়ের আমন্ত্রণ কমিউনিটি সেন্টারের দোতলার ২০১ নম্বর কক্ষে অভিযান চালায়। এসময় সেখানে মাদক গ্রহণ করে টাকা দিয়ে জুয়া (তাস) খেলারত অবস্থায় ঐ পুলিশ সদস্যদের আটক করা হয়।

 

কুষ্টিয়ায় আকিজ বিড়ি কারখানায় শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধসহ আহত ৫

যুগান্তর
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে আকিজ বিড়ি কারখানায় শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় এক শ্রমিক গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছেন অন্তত ৫ জন।

শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার হোসেনাবাদে কারখানার প্রধান ফটকের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকালে কারখানায় প্রবেশের সময় পার হওয়ার পর অনেক শ্রমিক ঢোকার চেষ্টা করেন। এ সময় কারখানার নিরাপত্তা কর্মীরা বাধা দিলে উভয়পক্ষে বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠলে কারখানার ম্যানেজার আমিনুল ইসলাম থানায় খবর দেন। পরে পুলিশ এসে শ্রমিকদের সেখান থেকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলে তারা ইট পাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ প্রথমে শ্রমিকদের লাঠিপেটা করে। পরে কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে। এ ঘটনায় এক শ্রমিক গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ৫ জন আহত হয়েছেন।

গুলিবিদ্ধ শ্রমিকের নাম শিপুল ইসলাম। তিনিসহ আহত ৫ শ্রমিক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন। দুপুর দেড়টা পর্যন্ত কারখানার সব শ্রমিক কাজ বন্ধ করে হোসেনাবাদ বাজারে কুষ্টিয়া-প্রাগপুর সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করছেন। তাদের সঙ্গে উপজেলার ফিলিপনগর কারখানার শ্রমিকরাও যোগ দিয়েছেন।

শ্রমিকদের অভিযোগ, কারখানা ম্যানেজার আমিনুল ইসলামের নির্দেশে পুলিশ শ্রমিকদের ওপর গুলি চালিয়েছে। তারা অবিলম্বে ম্যানেজারের অপসারণ দাবি করেন। এ ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে ম্যানেজার আমিনুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

 

গণমাধ্যম কর্মীদের বিরুদ্ধে কোনো মামলা হলে আমি হস্তক্ষেপ করি : তথ্যমন্ত্রী

নয়াদিগন্ত
বিভাগ: গণমাধ্যম

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, গণমাধ্যম কর্মীদের বিরুদ্ধে কোনো মামলা হলে আমি হস্তক্ষেপ করি। আমরা সময় মতোই ভ্যাকসিন পাব কিন্তু এটি নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে একটি কুচক্রী মহল।

শুক্রবার জুমার নামাজের আগে রংপুর সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, আমাদের দেশের মতো বিশ্বের কোথাও কোনো দেশে গণমাধ্যম এত স্বাধীনতা ভোগ করে না। অহেতুক যদি কোনো গণমাধ্যম কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা বা হয়রানি হয়, সেখানে আমি সরাসরি হস্তক্ষেপ করি এবং করব। বাংলাদেশকে ভারতের ভ্যাকসিন দেয়া না দেয়া প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, আমরা ভ্যাকসিন পাব এবং সময় মতো পাব। কিন্তু এটি নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে একটি মহল। গুজবে কান না দেয়ার জন্য দেশবাসীকে আহ্বান জানান তিনি। এ সময় রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম রাজুসহ আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ এবং জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। বিকেলে মন্ত্রী বাংলাদেশ টেলিভিশন রংপুরের আঞ্চলিক কেন্দ্র, রংপুর বেতার কেন্দ্র পরিদর্শন করেন এবং মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগের সাথে মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন।

 

সংবাদ সংগ্রহের সময় ২ টিভি ক্যামেরাপারসনের ওপর হামলা

বাংলা ট্রিবিউন
বিভাগ: গণমাধ্যম

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌরসভা নির্বাচনের প্রচারণার সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের হামলার শিকার হয়েছেন দুই সাংবাদিক। শুক্রবার (৮ জানুয়ারি) দুপুর ২টার দিকে উপজেলার শাহাপুর ও পেয়াদাপাড়া এলাকায় বিদ্রোহী প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র মুক্তার আলীর কর্মী-সমর্থকরা এ হামলা চালান বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহতরা হলেন– মাছরাঙা টেলিভিশন রাজশাহীর ক্যামেরাপারসন মাহফুজুর রহমান রুবেল এবং দীপ্ত টিভির ক্যামেরাপারসন রফিকুল ইসলাম। আহত মাহফুজুর রহমান রুবেল বলেন, ‘পেশাগত দায়িত্বপালন কালে আকস্মিকভাবে মুক্তার আলীর সমর্থকরা হামলা চালান। আমার গলা চেপে ধরে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা চালানো হয়। হামলাকারীরা আমার মোবাইল সেটটি ভেঙে ফেলে। তারা আমার ক্যামেরাও ভাঙার চেষ্টা করে। এ সময় দিপ্ত টিভির ক্যামেরাপারসন রফিকুল ইসলামকেও মারধর করা হয়। এমনকি আওয়ামী লীগ প্রার্থী শহিদুজ্জামান শহিদের পক্ষে প্রচারণা চালানোর কারণে রাজশাহী জেলা যুব মহিলা লীগের এক নারী নেত্রীকেও লাঞ্ছিত করে হামলাকারীরা।’

তিনি আরও জানান, বাঘায় যুব মহিলা লীগের নেত্রীরা নৌকার প্রচারণা চালাচ্ছিলেন। ওই সময় বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকেরা তাদের কাছ থেকে নৌকার লিফলেট নিয়ে সঙ্গে সঙ্গে ছিঁড়ে ফেলছিলেন। এই দৃশ্যের তারা ভিডিও ধারণ করছিলেন। আর তখনই বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকরা তাদের ওপর আক্রমণ করে। এক সমর্থক তার গলা টিপে ধরে বলে, ‘সাংবাদিকের বাচ্চা তোকে আজ মেরেই ফেলব।’ এরপর স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করেন।

এ ব্যাপারে বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে রওনা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এ ব্যাপারে হামলার শিকার দুই সাংবাদিক অভিযোগ দিলে তা গ্রহণ করা হবে এবং ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

আড়ানী পৌরসভা নির্বাচন
মেয়র প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে দুই সাংবাদিককে লাঞ্ছিত করার অভিযোগ

প্রথম আলো
বিভাগ: গণমাধ্যম

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌরসভা নির্বাচনে প্রচারণার ছবি তুলতে গেলে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকেরা দুই সাংবাদিককে লাঞ্ছিত করেন। এ ব্যাপারে সাংবাদিকেরা বাঘায় থানায় গিয়ে পুলিশকে মৌখিক অভিযোগ করেছেন। শুক্রবার বেলা দুইটার দিকে পৌর এলাকার শাহাপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আড়ানী পৌর নির্বাচনের বিদ্রোহী প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র মুক্তার আলীর কর্মী-সমর্থকেরা এ হামলা চালান। এতে আহত হয়েছেন মাছরাঙা টেলিভিশনের রাজশাহীর ক্যামেরাপারসন মাহফুজুর রহমান ওরফে রুবেল ও দীপ্ত টিভির ক্যামেরাপারসন রফিকুল ইসলাম। তাঁরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

মাহফুজুর রহমান বলেন, যুব মহিলা লীগের নেত্রীরা নৌকার প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছিলেন। ওই সময় বিদ্রোহী প্রার্থী মুক্তার আলীর সমর্থকেরা নৌকার প্রচারপত্র কেড়ে নিয়ে ছিঁড়ে ফেলছিলেন। এই ছবি তুলতে গেলে মুক্তারের সমর্থক মিলন তাঁকে ফোন পকেটে ভরে এলাকা ছেড়ে চলে যেতে বলেন। এরপরও তিনি ছবি তুলতে গেলে মিলন তাঁর গলা টিপে ধরেন। এ সময় তাঁর দম বন্ধ হয়ে আসছিল। হামলাকারী তাঁর মুঠোফোনটি কেড়ে নিয়ে ভেঙে ফেলেন।

ছড়িয়ে দিনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •