Trial Run

আইনপ্রয়োগের চিত্র ও গণমাধ্যম: ২৬ ডিসেম্বর ২০২০

স্টেটওয়াচ রিসার্চ নেটওয়ার্ক কাজ করছে বাংলাদেশে আইনপ্রয়োগের সার্বিক চিত্র তুলে ধরার পাশাপাশি মতপ্রকাশের স্বাধীনতা সংক্রান্ত বাস্তবতা নিয়ে। এর অংশ হিসেবে স্টেটওয়াচ নিউজে আমরা প্রতিদিনকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত খবরাখবরগুলো সংক্ষেপে তুলে ধরার উদ্যোগ নিয়েছি। প্রতিদিন নিম্নোক্ত মাধ্যমসমূহ থেকে সংবাদগুলো সংগ্রহ ও তা নথিবদ্ধ করছে আমাদের কর্মীরা: প্রথম আলো, কালের কণ্ঠ, যুগান্তর, সমকাল, নয়া দিগন্ত, ইত্তেফাক, দেশ রূপান্তর, ডেইলি স্টার, নিউ এজ, দ্য ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেস, বাংলা ট্রিবিউন, বিডিনিউজ২৪ ডটকম, আমাদের সময়, মানবজমিন। আমরা আশা করি, এই প্রতিবেদন নিয়মিত প্রকাশের মাধ্যমে জনগণের তথ্যপ্রাপ্তির অধিকার আরো শক্তিশালী হবে।

২৬ ডিসেম্বর ২০২০, শনিবার, ১১ পৌষ ১৪২৭, পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত
আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত নির্বাচিত খবরের সার-সংক্ষেপ

 

সীতাকুণ্ডে ডাকাতি মামলায় গ্রেপ্তার দুই পুলিশ সদস্য কারাগারে

প্রথম আলো
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানোর ভয় দেখিয়ে ২ লাখ ৮০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার সীতাকুণ্ড থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সাইফুল ইসলাম ও কনস্টেবল সাইফুল ইসলামকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পুলিশের আদালত পরিদর্শক হুমায়ূন কবির। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, সীতাকুণ্ড থেকে গ্রেপ্তার করা ডাকাতি মামলার আসামি দুই পুলিশ সদস্যকে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় আদালতে তোলা হয়। আদালত তাঁদের জেলহাজতে প্রেরণ করার নির্দেশ দেন। এর আগে গতকাল সন্ধ্যায় আবু জাফর নামের এক ব্যক্তি এসআই সাইফুল ইসলামসহ (৩২) পাঁচজনকে আসামি করে সীতাকুণ্ড থানায় ডাকাতির মামলা করেন। মামলার অন্য আসামিরা হলেন ওসির দেহরক্ষী কনস্টেবল সাইফুল ইসলাম (২৭), পুলিশের তথ্যদাতা রিপন (৩৫) ও হারুন (৩৩) এবং গাড়িচালক রাজু (২৫)। চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপার এস এম রশিদুল হক। মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। মামলার বাদী আবু জাফর জামালপুর জেলার বকশীগঞ্জ থানার বিনোদচরের বাসিন্দা। বর্তমানে তিনি গাজীপুর সিটি এলাকায় বাসা ভাড়া করে থাকেন। ইয়াবা না পেয়ে আবু জাফরের কাছে থাকা ২ লাখ ৮০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে টিকিট কেটে তাঁকে গাড়িতে তুলে দেন সীতাকুণ্ড থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সাইফুল ইসলাম ও কনস্টেবল সাইফুল ইসলামসহ মামলার আসামিরা।

ডিবি পরিচয়ে টাকা লুট দুই পুলিশ গ্রেপ্তার

কালের কন্ঠ
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে এক গাড়িচালকের দুই লাখ ৮০ হাজার টাকা লুটের অভিযোগে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দুই পুলিশ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পরে আদালত তাঁদের কারাগারে পাঠিয়েছেন। এ ছাড়া তাঁদের সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এর আগে ভুক্তভোগী গাড়িচালক মো. আবু জাফর এই দুই পুলিশ সদস্য ও তিন পুলিশ সোর্সের বিরুদ্ধে সীতাকুণ্ড থানায় একটি মামলা করেন। গ্রেপ্তার পুলিশ সদস্যরা হলেন সীতাকুণ্ড থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. সাইফুল আলম এবং ওসির বডিগার্ড কনস্টেবল মো. সাইফুল ইসলাম। মামলার অন্য তিন আসামি (পুলিশ সোর্স) হলেন সীতাকুণ্ড পৌর এলাকার বাসিন্দা মো. রিপন (৩৫), হারুন (৩৩) ও গাড়িচালক রাজু (২৫)।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গাজীপুর মহানগরের গাছা থানার অস্থায়ী বাসিন্দা জামালপুরের বক্সীগঞ্জের বিনোদের চর গ্রামের মো. জহুরুল হকের ছেলে মো. আবু জাফর (৪৩) গত ২০ ডিসেম্বর সকালে একটি পিকআপ কিনতে সীতাকুণ্ডে আসেন, কিন্তু দরদামে না মেলায় তিনি গাড়িটি না কিনে সন্ধ্যায় ফিরে যাচ্ছিলেন। এ সময় পৌরসদর বাসস্ট্যান্ডে শ্যামলী বাস কাউন্টারে তিনজন পুলিশ সোর্স তাকে ইয়াবা কারবারি বলে ভয়ভীতি দেখান। একপর্যায়ে তাঁদের সঙ্গে যোগ দেন এসআই সাইফুল আলম ও কনস্টেবল সাইফুল ইসলাম। তাঁরা দুজন নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয় দেন এবং জাফরের কাছে ইয়াবা আছে বলে ভয়ভীতি দেখান।

 

তদন্তে অসৌজন্যমূলক আচরণ
বরিশালে এসআই রিয়াজের প্রত্যাহার দাবি বিএমএর

যুগান্তর
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

বরিশাল ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে রোগীর ভুল চিকিৎসার ঘটনার তদন্তে গিয়ে চিকিৎসকদের সঙ্গে পুলিশের অসৌজন্যমূলক আচরণের প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) বরিশাল শাখা। একই সঙ্গে তদন্তকারী কর্মকর্তা বরিশাল কোতোয়ালি মডেল থানার এসআই রিয়াজুল ইসলামকে প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে বিএমএ বরিশাল শাখার সহ-সভাপতি ডা. সৈয়দ মাকসুদ হক ও সাধারণ সম্পাদক ডা. মনিরুজ্জামান শাহীন সাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ দাবি জানানো হয়। বিবৃতিতে সংগঠনের বরিশাল শাখার সভাপতি ও ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালের সুপারিনটেনডেন্ট ডা. ইসতিয়াক হোসেনকে মামলার আসামি করায়ও নিন্দা জানিয়ে উল্লেখ করা হয়, ভুল অপারেশনের সঙ্গে ডা. ইসতিয়াক হোসেন সম্পৃক্ত না থাকা সত্ত্বেও তাকে আসামি করা হয়েছে। এছাড়া ওই হাসপাতালে অভিযোগের প্রাথমিক তদন্তে গিয়ে এসআই রিয়াজুল ইসলাম চিকিৎসকদের সঙ্গে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেছেন।

 

ইয়াবা ও টাকা লুট ঘিরে রহস্য, এসআইসহ দুই পুলিশ কারাগারে

সমকাল
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে ডিবি পরিচয়ে আবু জাফর নামে এক গাড়িচালকের কাছ থেকে দুই লাখ ৮০ হাজার টাকা লুটের ঘটনায় সীতাকুণ্ড মডেল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সাইফুল আলম ও কনস্টেবল সাইফুল ইসলামকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার থানায় মামলা রেকর্ডের পর তাদের চট্টগ্রাম আদালতে পাঠালে ম্যাজিস্ট্রেট তাদের জেলহাজতে পাঠান। মামলার অপর তিন আসামি হলেন- রিপন (৩৫), হারুন (৩৩) ও ব্যবসায়ীর গাড়িচালক রাজু (২৫)। তারা পলাতক।

তবে পুলিশের অপর এক সূত্র জানাচ্ছে ভিন্ন ঘটনা। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, ওই মামলার বাদী গাড়িচালক পরিচয়দানকারী আবু জাফর আসলে মাদক পাচারকারী। সীতাকুণ্ড পৌর সদরের বাসস্ট্যান্ড এলাকায় তাকে ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করেছিলেন এসআই সাইফুল আলম। পরে তার পেট থেকে উদ্ধার ইয়াবা ও তার কাছে থাকা দুই লাখ ৮০ হাজার টাকা রেখে ওই পাচারকারীকে ছেড়ে দেন তিনি। কিন্তু মামলায় ইয়াবার বিষয়টি উল্লেখ না করে শুধু টাকা লুটের বিষয়টি উল্লেখ করেছেন আবু জাফর। তবে উদ্ধার করা ইয়াবা থানায় জমা দেননি এসআই সাইফুল। বিষয়টি পুলিশ বিভাগে জানাজানি হলে বৃহস্পতিবার এসআই সাইফুলসহ এক কনস্টেবলকে পুলিশ লাইন্সে প্রত্যাহার করা হয়। এতে ওই ঘটনা নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে।

 

‘নবাব এলএলবি চলচ্চিত্রের পরিচালক ও এক অভিনেতা গ্রেপ্তার

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

পর্নোগ্রাফি আইনে দায়ের করা মামলায় ‘নবাব এলএলবি’ চলচ্চিত্রের পরিচালক অনন্য মামুন এবং অভিনেতা শাহীন মৃধাকে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। এই নির্মাতা ও অভিনেতার বিরুদ্ধে চলচ্চিত্রটিতে পুলিশের ভূমিকাকে ‘হেয় করে উপস্থাপনের’ অভিযোগ আনা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে তাদের গ্রেপ্তারের পর শুক্রবার আদালতে হাজির করা হয়েছিল। এখন তারা কারাগারে আছেন বলে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মাহবুবুর রহমান জানিয়েছেন।

তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “তাদের বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা হয়েছে। গ্রেপ্তারের পর তাদের আদালতে সোপর্দ করা হয়। সেখান থেকে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়।”

এই নির্মাতা ও অভিনেতার বিরুদ্ধে পুলিশের পক্ষ থেকে রমনা থানায় দায়ের করা মামলায় বলা হয়, ‘নবাব এলএলবি’ নামের ওই চলচ্চিত্রে ধর্ষণের শিকার এক নারী বিচারের আশায় থানায় গেলে কর্তব্যরত কর্মকর্তা (অভিনেতা শাহীন মৃধা) তাকে (ভিকটিম) অরুচিকর, বিকৃত প্রশ্ন করেন, যাতে পুলিশকে অত্যন্ত খাটো করে দেখানো হয়েছে। এতে পুলিশের সুনাম ক্ষুণ্ন হয়েছে। পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিটের পরিদর্শক মো. নসিরুল আমিন বাদী হয়ে এই মামলা দায়ের করেন।

 

পুলিশের পিটুনিতে চালকের মৃত্যু: বিক্ষোভ, ধর্মঘটের ডাক

দেশ রুপান্তর
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

রংপুরে প্রতিবন্ধী অটোরিকশাচালক নাজমুল ইসলামের মৃত্যুর ঘটনায় শুক্রবার দিনভর বিক্ষোভ-সমাবেশ করেছেন বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ও চালকরা। তারা শনিবার ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন।

শুক্রবার বিক্ষুব্ধরা প্রায় আধাঘণ্টা মহাসড়ক অবরোধ করেন। এরপর শনিবার নগরীতে আধাবেলা অটোরিকশা ধর্মঘটের ডাক দেন তারা। নাজমুল ইসলাকে হত্যার মামলায় পুলিশ কনস্টেবল হাসান আলী ও তার স্ত্রী সাথী বেগমকে গ্রেপ্তার করে। বুধবার রাতে নিহতের স্ত্রী শ্যামলী বেগম এ ঘটনায় তাদের আসামি করে হত্যা মামলা করেন। বৃহস্পতিবার তাদের আদালতে হাজির করে পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আশরাফুল ইসলাম। তবে এ বিষয়ে আদালত কোনো নির্দেশনা দেননি। শুক্রবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন পার্কের মোড়ে ঢাকা-রংপুর-কুড়িগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেন ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ও অটোরিকশা চালকরা।

এ ছাড়া সকালে নগরীর শাপলা চত্বরে রিকশাচালক শ্রমিক লীগ এবং দুপুরে বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় বাংলাদেশ ছাত্র ও যুব অধিকার পরিষদ বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করে। নাজমুল হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে রংপুর মহানগর ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ও ভ্যান জাতীয় শ্রমিক পার্টি শনিবার ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ধর্মঘটের ডাক দেয়। বুধবার দুপুরে কনস্টেবল হাসানের কোর্টপাড়া ভাড়া বাসা থেকে অটোরিকশা চালক প্রতিবন্ধী নাজমুলের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় কনস্টেবল হাসান ও স্ত্রীর বিরুদ্ধে নাজমুল হত্যাকাণ্ডের অভিযোগ এনে সড়কে বিক্ষোভ করেন ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ও অটোরিকশা চালকরা। বিক্ষোভের মুখে স্ত্রীসহ কনস্টেবল হাসানকে আটক করে পুলিশ।

 

তারকা ও সাংবাদিকদের জন্য ফেসবুকের নতুন নিরাপত্তাসুবিধা

প্রথম আলো
বিভাগ: গণমাধ্যম

আগামী বছর নতুন নিরাপত্তাসুবিধা যুক্ত করতে পারে ফেসবুক। যাঁরা ফেসবুকের নিরাপত্তা নিয়ে বেশি উদ্বেগে থাকেন, তাঁদের জন্য অতিরিক্ত সুরক্ষাব্যবস্থা হিসেবে নিরাপত্তা টোকেনের মোবাইল সমর্থনসুবিধা যুক্ত হবে। এ তথ্য দিয়েছেন ফেসবুকের নিরাপত্তা পলিসির প্রধান নাথানিয়েল গ্লেইসার। প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট এক্সিওএসের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। আগামী বছর থেকে ‘প্রটেক্ট সিকিউরিটি’ প্রোগ্রামটিকে বিভিন্ন ধরনের অ্যাকাউন্টের জন্য ব্যবহারের সুযোগ দেবে ফেসবুক। সুবিধাটি সাংবাদিক, মানবাধিকারকর্মী ও বিভিন্ন ক্ষেত্রের তারকারা ব্যবহার করতে পারবেন।

ফেসবুক প্রটেক্টের অধীনে রয়েছে বাড়তি নিরাপত্তাব্যবস্থা। এতে টু ফ্যাক্টর অথেনটিকেশন ব্যবস্থা ছাড়াও হ্যাকিং–প্রচেষ্টা হলে রিয়েল টাইমে জানার সুবিধা থাকবে। এত দিন পর্যন্ত এ সুবিধা কেবল যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতিবিদ, সরকারি সংস্থা, নির্বাচন কর্মকর্তা ও নীল টিক (ব্লু ব্যাজ) পাওয়া অ্যাকাউন্টের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য ছিল।

 

Kajol home after 290 long, bleak days

The Daily Star
Catagorey : Digital security act

Photojournalist Shafiqul Islam Kajol embracing his son Monorom Polok after being released from Dhaka Central Jail in Keraniganj yesterday morning. Kajol was arrested on May 4 after having gone missing for 53 days. On December 17, he secured bail in two of the three cases filed against him under the Digital Security Act. He had gotten bail from the other case earlier. “The day feels unreal,” said Monorom Polok after his father, photojournalist Shafiqul Islam Kajol, was released from the Dhaka Central Jail yesterday.

Kajol walked out of the jail in Keraniganj at 11:15am, as a free man, at last.

He was all cleared to be released on December 17, when the High Court granted him bail in two remaining cases filed against him under the Digital Security Act.

Since then, his family had been eagerly waiting to see the execution of the bail and Kajol freed.

Many had expected that the event of Kajol’s release would take place amid fanfare, with huge media presence. But it happened suddenly and quietly. A blurry photo shot from a distance, with the subject obstructed by bystanders, is all that exists from the moment for which activists and journalists had been waiting so long.

In the photo, Kajol is seen clutching his son in a hug, his eyes closed, his shaggy and unshaven face apparently overwhelmed with the emotion of the moment.

“We got to know late yesterday [Friday] that the bail order was sent to the jail. Father called this morning and we immediately rushed to pick him up,” said Polok.

 

Police SI, constable arrested for mugging

New Age
Category: state force

Two policemen of Sitakunda Police Station were arrested on Thursday night on charge of mugging Tk 2.80 lakh at Sitakunda upazila of Chattogram. Though the incident took place on December 20, it came to light after the victim, Md Abu Zafar, 43, a resident of Gazipur, filed the case against five people including the two cops on Thursday night.

The five accused are sub-inspector Saiful Alam, 32, constable Saiful Islam, 27, police sources Md Ripon, 35, Md Harun, 33 and police van driver Raju, 25.

Sitakunda circle additional SP Md Ashraful Karim said that Saiful Alam and constable Saiful Islam were arrested on Thursday night. They were suspended while a two-member probe committee headed by Ashraful Karim was formed to investigate the incident. The probe committee was asked to submit its findings within seven working days. The looted Tk 2.80 lakh could not be recovered yet. In the case statement, plaintiff Zafar said that he came to Sitakunda from Gazipur with the money to buy a pickup van on December 20 morning. However, he could not buy the pickup van and was waiting at Shyamoly bus counter of Sitakunda upazila proper in the evening.

Two police informants appeared before him and threatened to tag him as a yaba peddler, the statement said.

ছড়িয়ে দিনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •