Trial Run

শিশুদের টিকা না দিয়ে কর্মবিরতি চালিয়ে গেলেন স্বাস্থ্য সহকারীরা

নিয়োগ বিধি সংশোধন ও বেতন আপগ্রেডেশনের দাবিতে গত ২৬ নভেম্বর থেকে সারাদেশের ২৬ হাজার স্বাস্থ্য সহকারী অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি পালন করছে। এরই মাঝে সারাদেশে একযোগে হাম-রুবেলা টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়। তবে স্বাস্থ্য সহকারীদের কর্মবিরতির এবং কয়েকটি জেলার স্বাস্থ্য সহকারীরা জাতির পিতার ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদের কর্মসূচিতে অংশ নেওয়ায় টিকাদান কার্যক্রম ব্যাহত হয়।

শনিবার (১২ ডিসেম্বর) শুরু হওয়া এই টিকাদান কার্যক্রমের চিত্র দেশের প্রায় সর্বত্রই একই দেখা গেছে। কোথাও কোথাও বিকল্প ব্যবস্থা নেওয়া হলেও সংকট নিরসন সম্ভব হয়নি। অভিভাবকরা শিশুদের স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও টিকাদান কেন্দ্রে নিয়ে গেলেও কাউকে খুঁজে না পাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে। এতে হতাশ হয়ে স্বাস্থ্য সহকারীদের সমালোচনা করেছেন ভুক্তভোগী অভিভাবকরা।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় টিকাদান কর্মসূচি বর্জন করে কুষ্টিয়ায় শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্যের ওপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ হেলথ অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাসোসিয়েশন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার নেতারা। শনিবারের কর্মসূচিতে জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে আসা স্বাস্থ্য সহকারীরা অংশ নেন। এর ফলে ব্যাহত হয় টিকাদান কার্যক্রম।

কর্মসূচিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা স্বাস্থ্য পরিদর্শক সমিতির আহ্বায়ক আব্দুল বাসেদ বলেন, ‘গত ২৬ নভেম্বর থেকে সারা দেশের এক লাখ ২০ হাজার টিকাদান কেন্দ্রে ইপিআই কার্যক্রম বন্ধ আছে। হাম-রুবেলা টিকার জন্য সরকার ৪ কোটি ৩০ লাখ শিশুকে ইনজেকশন দেওয়ার মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন। আমরা বলতে চাই, যদি স্বাস্থ্য সহকারীদের দাবি না মানা হয়, তাহলে এদেশে হাম-রুবেলা টিকার ক্যাম্পেইন হবে না।’

জামালপুর
অন্যান্য জেলার মতো জামালপুরেও বঙ্গবন্ধু ভাস্কর্য ভাঙচুরের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ স্বাস্থ্য সহকারী অ্যাসোসিয়েশন ও স্বাস্থ্য পরিদর্শক সমিতি জামালপুর জেলা শাখা। শনিবার দুপুরে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে এ বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে শহর প্রদক্ষিণ করে বকুলতলায় গিয়ে শেষ হয়।

মাগুরা
মাগুরায় শনিবার হাম-রুবেলা টিকা কর্মসূচি ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে উদ্বোধন হলেও একই সময়ে বাইরে চলছিল স্বাস্থ্য সহকারীদের কর্মবিরতির কর্মসূচি। স্বাস্থ্য সহকারীরা ১৫ দিন ব্যাপী কর্মবিরতিতে থাকায় টিকা দান কর্মসূচিতে সৃষ্টি হয়েছে সংকট। মাগুরা স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, স্বাস্থ্য সহকারীরা কর্মবিরতিতে থাকায় বিকল্প ব্যবস্থায় দেওয়া হচ্ছে টিকা। সমগ্র জেলায় দুই লাখের বেশি শিশুকে টিকা দানের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, অনেক নির্ধারিত কেন্দ্রেই শনিবার টিকা দেওয়া হয়নি। শহরের ইসলামপুর পাড়ার আন্না খাতুন, রবিউল ইসলাম, দোয়ার পাড় এলাকার সাফায়েত কবির কোথায় টিকা দেওয়া হচ্ছে তা জানেন না বলে জানান। তারা তাদের বাচ্চাদের নিয়ে কেন্দ্রে গিয়ে ফিরে এসেছেন।

বাগেরহাট
জেলার সিভিল সার্জন ডা. কেএম হুমায়ুন কবির সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘পূর্ব নির্ধারিত সময়ে বাগেরহাট ও মোংলা পৌরসভায় টিকাদান কার্যক্রম শুরু করেছি। কিন্তু স্বাস্থ্য সহকারীদের কর্মবিরতির কারণে মোরেলগঞ্জ পৌরসভাসহ জেলার ৯টি উপজেলায় টিকাদান কর্মসূচি শুরু করা যায়নি। বাগেরহাট জেলায় তিন লাখ ১৫ হাজার শিশুকে এবার হাম-রুবেলা টিকা দেওয়ার কথা রয়েছে।’

গাজীপুর
স্বাস্থ্য সহকারীদের কর্মবিরতির সমর্থণে গাজীপুরে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে বাংলাদেশ হেলথ অ্যাসিসট্যান্ট অ্যাসোসিয়েশন গাজীপুর জেলা শাখার নেতাকর্মীরা। শনিবার দুপুরে তাদের একটি বিক্ষোভ মিছিল গাজীপুর সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সামনে থেকে বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের গেইটের সামনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা কর্মসূচি পালন করে। এতে টিকাদান কার্যক্রম ব্যাহত হয়।

বরিশাল
বরিশাল প্রতিনিধি জানান, স্বাস্থ্য সহকারীদের ধর্মঘট প্রত্যাহার না হওয়ায় জেলা পর্যায়ে বিকল্প ব্যবস্থায় এই টিকাদান কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। অপরদিকে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় এই কার্যক্রম সম্পন্নের কথা জানিয়েছেন সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষ।

সিভিল সার্জন মনোয়ার হোসাইন জানিয়েছেন, স্বাস্থ্য সহকারীদের ধর্মঘটের কথা মাথায় রেখে বিকল্প ব্যবস্থাপনায় এই কার্যক্রম সম্পন্ন করা হচ্ছে। যেখানে কমিউনিটি ক্লিনিক হেলথ প্রোভাইডার ও পরিবার কল্যাণ সহকারী এবং স্টাফ নার্সদের মাধ্যমে এই কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

হবিগঞ্জ
চার ৪ দফা দাবিতে স্বাস্থ্য সহকারী ও স্বাস্থ্যকর্মীরা চলমান আন্দোলনে থাকলেও হবিগঞ্জে বিকল্প ব্যবস্থায় শিশুদের হাম-রুবেলা টিকা দেওয়া হচ্ছে। তবে শুধুমাত্র পৌর শহরে এই ব্যবস্থা নেওয়া হলেও উপজেলা পর্যায়ে টিকার ব্যবস্থা এখনও নেই। আশঙ্কা করা হচ্ছে এতে লাখো শিশু টিকা বঞ্চিত থাকতে পারে।

হবিগঞ্জের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মুখলেছুর রহমান উজ্জল জানান, শুধুমাত্র পৌরসভায় হাম-রুবেলার টিকা দান কর্মসূচি শুরু হয়েছে। এছাড়াও সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন স্থানে বিকল্প ব্যবস্থায় টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে ধারাবাহিকভাবে তা বাস্তবায়ন করা হবে।

খাগড়াছড়ি
খাগড়াছড়িতে বিকল্প পদ্ধতিতে শুরু হয়েছে হাম-রুবেলার টিকাদান ক্যাম্পইন। স্বাস্থ্য সহকারীদের ধর্মঘট চললেও খাগড়াছড়ি পৌরসভার স্বাস্থ্যকর্মীদের সহযোগীতায় প্রথম দিন পৌর এলাকার চারটি কেন্দ্রে শুরু হয়েছে এই কার্যক্রম। খাগড়াছড়ি জেলায় ৯ মাস থেকে ১০ বছরের কমবয়সী এক লাখ ৪০ হাজার তিন জন শিশুকে দুই হাজার ৭৩৬টি কেন্দ্রে প্রথম ডোজের হাম-রুবেলার টিকা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে।

স্বাস্থ্য সহকারীদের দাবি
নিয়োগবিধি সংশোধনসহ ক্রমানুসারে স্বাস্থ্য পরিদর্শক, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য সহকারীদের বেতন গ্রেড ১৬তম থেকে যথাক্রমে ১১, ১২ ও ১৩তম গ্রেডে উন্নতি করার দাবি জানিয়ে আসছে আন্দোলনরত স্বাস্থ্য সহকারীরা।

স্বাস্থ্য সহকারীরা বিভিন্ন কর্মসূচিতে জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৮ সালের ৬ ডিসেম্বর স্বাস্থ্য পরিদর্শক, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য সহকারীদের এক মহাসমাবেশে বেতনবৈষম্য নিরসনের ঘোষণা দিয়েছিলেন। ২০১৮ সালের ২ জানুয়ারি তৎকালীন স্বাস্থ্যমন্ত্রী আমাদের দাবি মেনে নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য একটি কমিটি গঠন করে দেন। এছাড়া চলতি বছরের ২০ ফেব্রুয়ারি আমরা হাম-রুবেলা ক্যাম্পেইন বর্জন করলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী, সচিব ও মহাপরিচালক আমাদের দাবি মেনে নিয়ে লিখিত সমঝোতা পত্রে স্বাক্ষর করেন। সে অনুযায়ী আমরা এখনও কোনও সুবিধা পাইনি।

এসডব্লিউ/মিই/নাসি/১৪৫০

ছড়িয়ে দিনঃ
  • 10
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    10
    Shares