Trial Run

গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে ইরানে সাংবাদিকের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

ইসরাইল, ফ্রান্স ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রসহ কয়েকটি দেশের গুপ্তচর সংস্থার হয়ে দেশবিরোধী তৎপরতা চালানোর অভিযোগ এনে ভিন্নমতাবলম্বী সাংবাদিক রুহুল্লাহ জাম-এর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছে ইরান। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো এ খবর নিশ্চিত করেছে। তারা জানিয়েছে, রুহুল্লাহ জামের বিরুদ্ধে হাইকোর্টের দেওয়া ফাঁসির আদেশ বহাল রেখে কয়েক দিন আগে চূড়ান্ত রায় ঘোষণা করেছে ইরানের সুপ্রিম কোর্ট। এরপরই শনিবার সকালে জামের মৃত্যুদণ্ড কাযর্কর করা হয়েছে।

রুহুল্লাআহ জাম-এর বিচারিক হত্যাকাণ্ডকে ‘চূড়ান্ত অবিচার’ অ্যাখা দিয়ে কঠোর নিন্দা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছে রিপোর্টাস উইথআউট বর্ডারস- আরএসএফ। জানা যায়, ইরানের বাইরে বেশ কিছুদিন নির্বাসিত জীবন-যাপন করতে বাধ্য হন রুহুল্লাহ। ফ্রান্স, ইসরায়েল ও আরও কিছু পশ্চিমা দেশের সহযোগিতায় ইরান-বিদ্বেষী প্রচার চালানোর অভিযোগে ২০১৯ সালে জামকে বন্দি করে ইরানের ইসলামী বিপ্লবী বাহিনী (আইআরজিসি)। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি ম্যাসেজিং অ্যাপ ‘টেলিগ্রাম’ এবং নিজের ‘আমাদ নিউজ’-এর মাধ্যমে ‘ইরানের পতন’ ঘটানোর ঘোষণা দেন।

ইরান সরকারের দাবি ও ইরনা প্রদর্শিত ভিডিওচিত্র অনুযায়ী, রুহুল্লাহ যাম ইরানে বিশৃঙ্খলা ছড়াতে বিদেশি গুপ্তচর সংস্থাগুলোর কাছ থেকে অর্থ গ্রহণের কথা স্বীকার করেছেন। তার স্বীকারোক্তিমূলক বিভিন্ন বক্তব্য ইরানের টিভি চ্যানেলগুলোসহ গণমাধ্যমে প্রচারিত হয়েছে। ফ্রান্স সরকার তার উচ্চ পর্যায়ের নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছিল বলে তিনি স্বীকারোক্তিতে বলেন।

গত বছর ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর গোয়েন্দা বিভাগ তাকে আটক করে। ফরাসি গোয়েন্দাদের প্রতিরক্ষা ব্যুহ ভেঙে রুহুল্লাহকে আটকের ঘটনা ভিন্নমত দমনে ইরানি গোয়েন্দাদের প্রাণপণ চেষ্টাকেই প্রতিফলিত করে বলে বিশ্লেষকদের অভিমত।

রুহুল্লাহর বিরুদ্ধে সে সময় ‘করাপশন অন আর্থ’ অভিযোগ আনা হয়েছিল। সাধারণত গুপ্তচরবৃত্তি বা ইরান সরকারকে উৎখাতের চেষ্টায় যুক্ত থাকায় লোকজনের বিরুদ্ধে এ ধরনের অভিযোগ আনা হয়। অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হন রুহুল্লাহ। এ সপ্তাহের শুরুতে ইরানের সুপ্রিম কোর্ট তার মৃত্যুদণ্ডের রায় ঘোষণা করেন।

শনিবার আধা সরকারি ইরনা নিউজ এজেন্সির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তেহরানের রিভোল্যুশনারি প্রসিকিউটরের কার্যালয় রুহুল্লাহর ফাঁসি কার্যকরের ঘোষণা দিয়েছে। ৪৭ বছর বয়সী এই ইরানি সাংবাদিকের মৃত্যুদণ্ডের ঘটনায় নিন্দা প্রকাশ করেছে আরএসএফ ও আরো অনেক আন্তর্জাতিক সংগঠন।

এসডাব্লিউ/বিটি-পিটি/আরা/২০০০

ছড়িয়ে দিনঃ
  • 65
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    65
    Shares