Trial Run

আফগান বাহিনীর সঙ্গে তালেবানের তীব্র লড়াই

ছবি: সংগৃহীত

আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার শুরু হওয়ার দিন কয়েকের মধ্যেই দক্ষিণের হেলমান্দ প্রদেশে বড় ধরনের হামলা চালিয়েছে তালেবান। আফগান সরকার সোমবার (৪ এপ্রিল) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, হেলমান্দ প্রদেশের গুরুত্বপূর্ণ একটি ঘাঁটি বুঝে নেওয়ার পর বেশ কয়েকটি অভিযানে কমপক্ষে ৬০  তালেবান নিহত হয়েছেন।

আফগান প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ফাওয়াদ আমান বলেছেন, বিদেশি সেনাদের সহায়তা ছাড়াই আফগান বাহিনী তালেবানদের ওপর এসব সফল অভিযান চালিয়েছে। তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘন্টায় এসব অভিযানে ৬২ জন তালেবান যোদ্ধা নিহত এবং ৫৮ জন আহত হয়েছেন।

দক্ষিণ হেলমান্দের রাজধানী লস্কর গাহের শহরতলির এক বাসিন্দা মোল্লা জান বলেন, এখানে বজ্রপাতের মতো ভারী বিস্ফোরণ ঘটছে। খই ফোটার মতো গুলির আওয়াজ শোনা যাচ্ছে। তিনি বলেন, ‘পরিবারের সবাইকে ঘরের এক কোনায় নিয়ে এসেছি। সেখান থেকে ভারী বিস্ফোরণ আর গুলির শব্দ শুনছি, যেন ঠিক আমাদের দেয়ালের পেছনেই লড়াই চলছে।’

হেলমান্দের প্রাদেশিক কাউন্সিলের প্রধান আতাউল্লাহ আফগান বলেন, সোমবার তালেবানরা নানা দিক দিয়ে বড় ধরনের হামলা চালায়। লস্কর গাহের বাইরে চেকপয়েন্টগুলোতে হামলা চালায় তারা এবং কয়েকটি চেকপোস্ট দখল করে নেয়।

তিনি আরও বলেন, তালেবানের হামলাকে প্রতিহত করতে ওই এলাকায় বিশেষ নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। তালেবানদের অবস্থানের ওপর বিমান হামলা চালিয়েছে আফগান বাহিনী। তালেবানরা পিছু হটলেও আজও উভয় পক্ষের মধ্যে লড়াই চলে। এ পরিস্থিতিতে কয়েক শ পরিবার ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়েছে।

চলতি বছরের ১ মের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের কথা ছিল যুক্তরাষ্ট্রের। গত বছর তালেবানের সঙ্গে এক আলোচনায় এ সময়সীমা ঘোষণা করেছিল ট্রাম্প প্রশাসন। তবে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ১ মে থেকে সেনা প্রত্যাহার শুরু করার এবং আগামী ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সব সেনা ফিরিয়ে নেওয়ার ঘোষণা দেন। সমালোচকেরা বলছেন, মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের এ সিদ্ধান্তে তালেবান আফগানিস্তানের ক্ষমতায় ফিরে আসার চেষ্টা করবে।

এদিকে আফগান শান্তিচুক্তি অনুযায়ী আফগানিস্তান থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে সেনা প্রত্যাহার শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো বাহিনী। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন এর মাধ্যমে একটি অন্তহীন যুদ্ধ শেষ হওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হল। সেই উপলক্ষে যুদ্ধবিধস্ত দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় হেলমান্দের প্রদেশে অবস্থিত মার্কিন সামরিক বাহিনীর অন্যতম প্রধান ঘাঁটি লেদারনেক আফগান সেনাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ৩ এপ্রিল  আনুষ্ঠানিকভাবে এ হস্তান্তর কার্যক্রম হয়।

মার্কিন ও ব্রিটিশ বাহিনী আফগানিস্তানে ২০১৪ সালে যুদ্ধের মিশন শেষ হওয়ার পর থেকেই দেশটির দক্ষিণের বেশিরভাগ ঘাঁটির নিয়ন্ত্রণ আফগান বাহিনীর হাতে ছেড়ে দেয়। ২০১৮ সালে তালেবান হামলা বাড়তে থাকলে তারা আবার হেলমান্দে ফিরে আসে।

এসডব্লিউ/এমএন/ এফএ/১২৩৯


State watch সকল পাঠকদের জন্য উন্মুক্ত সংবাদ মাধ্যম, যেটি পাঠকদের অর্থায়নে পরিচালিত হয়। যে কোন পরিমাণের সহযোগিতা, সেটি ছোট বা বড় হোক, আপনাদের প্রতিটি সহযোগিতা আমাদের নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে ভবিষ্যতে বড় অবদান রাখতে পারে। তাই State watch-কে সহযোগিতার অনুরোধ জানাচ্ছি।  

ছড়িয়ে দিনঃ
  • 22
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    22
    Shares

আপনার মতামত জানানঃ