Trial Run

মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের ঘটনায় ইউপি সদস্যসহ ৩জন গ্রেপ্তার

ছবি: বণিক বার্তা

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের ঘটনায় ইউপি সদস্যসহ তিনজন ডাকাতকে গ্রেপ্তার করেছে ঘোড়াঘাট থানা পুলিশ। এ ঘটনায় উদ্ধার করা হয়েছে ছিনতাই হওয়া একটি মোটরসাইকেল।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- ৪ নং ঘোড়াঘাট ইউনিয়ন পরিষদের ৭নং ওয়ার্ড সদস্য রুহুল আমিন (৪১)। তিনি ঘোড়াঘাট উপজেলার কুন্দারামপুর চৌধুরীপাড়া গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে। অপর দুজন হলেন উপজেলার চোরগাছা গ্রামের আবুল কালামের ছেলে সাইদুল ওরফে সাইফুল (৩৭) এবং কুন্দারামপুর পূর্বপাড়া গ্রামের গোলাম মোস্তফার ছেলে মনোয়ার হোসেন (২৬)।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ৪ মার্চ রাতে পাশ্ববর্তী হাকিমপুর উপজেলার বাসুদেবপুর গ্রামের আজাদ মন্ডলের ছেলে আরিফ মিয়া (২৬) তার এক বন্ধুকে সাথে নিয়ে ঘোড়াঘাট রানীগঞ্জ বাজার থেকে মোটর সাইকেল যোগে নিজ বাড়ির দিকে যাচ্ছিল। তারা ডুগডুগিহাট রোডের জোড়া ব্রীজ পৌঁছালে কয়েকজন ছিনতাইকারী রাস্তার মাঝে গাছ ফেলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। এ সময় ছিনতাইকারীরা চাকু সহ বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্রের দিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে তাদের হাত-পা দড়ি দিয়ে বেঁধে তাদের লাল কালারের টিভিএস আরটিআর মোটরসাইকেল এবং কাছে থাকা প্রায় ১৭ হাজার টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনতাই করে নিয়ে যায়। ছিনতাই করা কালে আরিফ মিয়া মোবাইলের আলোতে ইউপি মেম্বার আমিন এবং অপর আরেক ছিনতাইকারীর চেহারা চিনতে পারেন।

ঘোড়াঘাট থানার ওসি (তদন্ত) মমিনুল ইসলাম জানান, ভুক্তভোগীরা ছিনতাইকারীদের নাম উল্লেখ করে থানায় এজাহার দেয়। পরে পুলিশের একটি দল পৃথক স্থান থেকে ইউপি সদস্যসহ আরো দুজন ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী উপজেলার রুপসীপাড়া গ্রামের একটি পরিত্যক্ত চাতাল থেকে ছিনতাই হওয়া মোটর সাইকেলটি উদ্ধার করে পুলিশ।

ঘোড়াঘাট থানার ওসি (তদন্ত) মো. মমিনুল ইসলাম জানান, গ্রেপ্তার আসামীদেরকে ৯ মার্চ  দিনাজপুরের বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে দিনাজপুর জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। তিনজন আসামীর বিরুদ্ধেই বিগত দিনের ডাকাতি সহ একাধিক মামলা রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞরা জানান, ইউপি সদস্যসহদের বিরুদ্ধে প্রায়ই বিভিন্ন রকমের অভিযোগ আসে। তারা জনপ্রতিনিধি হয়েও বিভিন্ন দুর্নীতি, সরকারি অনুদান চুরি, জোর করে জমি দখলসহ আরো বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িয়ে পড়েন যা অত্যন্ত গর্হিত কাজ।  তারা বলছেন, দেশের প্রায় প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্যসদের বিরুদ্ধেই বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে। সরকারদলীয় ও স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী হওয়াতে তাদের বিরুদ্ধে কেউ অভিযোগ করতেও সাহস পায় না। ক্ষমতার অপব্যবহার করে তারা সহজেই পার পেয়ে যায়। এসবের বিরুদ্ধে সরকারের কঠোর পর্যবেক্ষণ ও সুষ্ঠু তদারকির আহ্বান জানান তারা।

এসডব্লিউ/এমএন/ এফএ/১৬১৫

ছড়িয়ে দিনঃ
  • 10
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    10
    Shares

আপনার মতামত জানানঃ