Trial Run

আইনপ্রয়োগের চিত্র ও গণমাধ্যম: ৫ মার্চ, ২০২১

স্টেটওয়াচ রিসার্চ নেটওয়ার্ক কাজ করছে বাংলাদেশে আইনপ্রয়োগের সার্বিক চিত্র তুলে ধরার পাশাপাশি মতপ্রকাশের স্বাধীনতা সংক্রান্ত বাস্তবতা নিয়ে। এর অংশ হিসেবে স্টেটওয়াচ নিউজে আমরা প্রতিদিনকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত খবরাখবরগুলো সংক্ষেপে তুলে ধরার উদ্যোগ নিয়েছি। প্রতিদিন নিম্নোক্ত মাধ্যমসমূহ থেকে সংবাদগুলো সংগ্রহ ও তা নথিবদ্ধ করছে আমাদের কর্মীরা: প্রথম আলো, কালের কণ্ঠ, যুগান্তর, সমকাল, নয়া দিগন্ত, ইত্তেফাক, দেশ রূপান্তর, ডেইলি স্টার, নিউ এজ, দ্য ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেস, বাংলা ট্রিবিউন, বিডিনিউজ২৪ ডটকম, আমাদের সময়, মানবজমিন। আমরা আশা করি, এই প্রতিবেদন নিয়মিত প্রকাশের মাধ্যমে জনগণের তথ্যপ্রাপ্তির অধিকার আরো শক্তিশালী হবে।

৫ মার্চ, ২০২১ শুক্রবার, ২০ ফাল্গুন ১৪২৭ পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত নির্বাচিত খবরের সার-সংক্ষেপ।

 

মোটরসাইকেলে জেলার গণ্ডি পেরোতে পারবে না পুলিশ

 

বাংলা ট্রিবিউন

বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

মোটরসাইকেলে পুলিশে কর্মরত কোনও ব্যক্তি সরকারি কাজে, ব্যক্তিগতভাবে কিংবা ছুটিতে এক জেলা থেকে আরেক জেলায় ভ্রমণ করতে পারবে না। এ নির্দেশনা দিয়েছে পুলিশ সদরদফতর।

পুলিশ সদরদফতর সূত্র বলছে, সম্প্রতি পুলিশ সদস্যদের প্রায়ই সরকারি ও ব্যক্তিগত কাজে মোটরসাইকেলে করে এক জেলা থেকে অন্য জেলায় ভ্রমণ করতে দেখা যায়। এতে অনেকে সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হয়ে গুরুতর আহত বা নিহত হচ্ছেন। মূলত এ কারণেই এই নিষেধাজ্ঞা। কোনও পুলিশ সদস্য এই নির্দেশনা অমান্য করলে, তা মারাত্মক শৃঙ্খলাপরিপন্থী আচরণ হিসেবে বিবেচিত হবে।

পুলিশ সদরদফতরের অতিরিক্ত ডিআইজি কনফিডেন্সিয়াল আব্দুল্লাহীল বাকী স্বাক্ষরিত নির্দেশনা গত ২৪ ফেব্রুয়ারি পুলিশের সকল ইউনিট প্রধানদের জানানো হয়। এর তিন দিন আগে ২১ ফেব্রুয়ারি রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে মোটরসাইকেল গাছের সঙ্গে ধাক্কা লাগলে এইচ এম রনি ওরফে হাদী রনি নামে এক পুলিশ সদস্য নিহত হন। একই ঘটনায় তার স্ত্রী আহত হন।

 

উন্নয়নশীল দে‌শে উন্নীত: সব থানায় আনন্দ উদযাপন করবে পুলিশ

 

বাংলা ট্রিবিউন

বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

 স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণে জাতিসংঘের চূড়ান্ত সুপারিশপ্রাপ্তি জাতির জন্য এক মাহেন্দ্রক্ষণ ও দুর্দান্ত এক অর্জন। এই উপলক্ষে আগামী ৭ মার্চ সারাদেশের ৬০৭টি থানায় আনন্দ উদযাপন করবে পুলিশ।

শুক্রবার রাজারবাগ পুলিশ অডিটোরিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ। এই সময় পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

গত ২৬ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশকে স্বল্পোন্নত দেশ হতে উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে চূড়ান্ত সুপারিশের ঘোষণা দেয় জাতিসংঘের কমিটি ফর ডেভেলপমেন্ট পলিসি (ইউএন সিডিপি)। স্বাধীনতার ৫০ বছরপূর্তি এবং জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীতে বাংলাদেশের এ অর্জন এক ঐতিহাসিক মাইলফলক বলে উল্লেখ করেন আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ। তি‌নি ব‌লেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর যোগ্য নেতৃত্বে এদেশের ১৮ কোটি মানুষের ৩৬ কোটি হাতের সম্মিলিত প্রয়াসের ফল আমাদের এ অর্জন।’ তাই তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ এ দেশের ১৮ কোটি মানুষকে এ ঐতিহাসিক অর্জনের জন্য সাধুবাদ জানান।

 

যৌতুকের মামলায় পুলিশ কনস্টেবলের ২ বছরের কারাদণ্ড

 

বাংলা ট্রিবিউন

বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

পাবনায় স্ত্রীর দায়ের করা যৌতুকের মামলায় এক পুলিশ কনস্টেবলকে দুই বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে ৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও একমাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৪ মার্চ) দুপুরে পাবনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-১ এর বিচারক শামসুল আলামীন এ রায় ঘোষণা করেন। সাজাপ্রাপ্ত সোহেল রানা জেলার সাঁথিয়া উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের ওয়াদুদ হোসেনের ছেলে।

সে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) এ কনস্টেবল হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তার কনস্টেবল নং-২৯৫৪৬। মামলার বাদী সোহেল রানার স্ত্রী জালেকা খাতুন একই উপজেলার দারামুদা গ্রামের মৃত আব্দুস সাত্তারের মেয়ে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, বিয়ের পর থেকে স্ত্রী’র কাছে ৫ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে আসছিলেন কনস্টেবল সোহেল রানা। যৌতুকের টাকা না পেয়ে বিভিন্ন সময় স্ত্রীকে মারধর করতেন তিনি। একপর্যায়ে যৌতুকের টাকা দিতে অস্বীকার করায় ২০১৬ সালের ২৭ আগস্ট গর্ভজাত শিশু সন্তানসহ স্ত্রী জালেকা খাতুনকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন সোহেল। এরপর বাবার বাড়িতে থাকলেও স্ত্রী, সন্তানের কোনও খোঁজ নেননি তিনি। ওই বছরের ৭ অক্টোবর জালেকা খাতুনকে নিয়ে তার স্বজনরা সোহেল রানার বাড়িতে গিয়ে তাকে মেনে নিতে অনুরোধ করেন। কিন্তু সোহেল ৫ লাখ টাকা না দিলে জালেকাকে গ্রহণ করবে না বলে জানিয়ে দেন।

 

কক্সবাজারে ছিনতাই মামলায় তিন পুলিশ সদস্য ফের রিমান্ডে

 

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

কক্সবাজার শহরে এক নারীকে পিস্তল ঠেকিয়ে ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেপ্তার তিন পুলিশ সদস্যকে দ্বিতীয় দফায় আরও তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।

বৃহস্পতিবার বিকালে কক্সবাজারের দ্রুত বিচার ট্রাইবুন্যালের বিচারক দেলোয়ার হোসেন শামীমের আদালত এ আদেশ দিয়েছে বলে আদালতের পুলিশ পরিদর্শক চন্দন কুমার চক্রবর্তী জানিয়েছেন।

গত মঙ্গলবার প্রথম দফায় গ্রেপ্তার এই ৩ পুলিশ সদস্যকে দুইদিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদেশ দিয়েছিল আদালত। ওইদিন রাতেই তাদের পুলিশ হেফাজতে রিমান্ডে নেওয়া হয়েছিল।

আসামিরা হলেন, এসআই নুর হুদা সিদ্দিক, কনস্টেবল আমিনুল মমিন এবং মামুন মোল্লা। এরা সবাই কক্সবাজার শহর পুলিশ ফাঁড়িতে কর্মরত। আদালত পরিদর্শক চন্দন কুমার চক্রবর্তী বলেন, ওই নারীর কাছ থেকে টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেপ্তার তিন পুলিশ সদস্যকে প্রথম দফায় দুইদিনের রিমান্ড শেষে আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা আসামিদের আবারো জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনদিনের রিমান্ড আবেদন করেন। এ নিয়ে আদালত আবেদনটি মঞ্জুর করে।

 

শিগগিরই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধন: আইনমন্ত্রী

 

যুগান্তর

বিভাগ: ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন

কিছু দিনের মধ্যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধন করা হবে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। শুক্রবার সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া রেলওয়ে জংশনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান। পরে মন্ত্রী স্টেশনের বাইরে এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন। এ সময় তিনি বলেন, আপনারা সবাই যদি শেখ হাসিনার সঙ্গে থাকেন, তা হলে বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ পাল্টে যাবে। আইনমন্ত্রী বলেন, আপনাদের সাহসে পদ্মা সেতু নিজেদের টাকায় করা হচ্ছে। বাংলাদেশের অর্থনৈতিক মানচিত্র বদলে গেছে। বাংলাদেশ এখন সারাবিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে পরিচিত। সবই জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের কারণে।

 

Digital Security Act: Govt to ensure no arrest before probe

 

Says law minister

The Daily Star

Category: Digital Security Act

The government is taking measures to ensure that no one is arrested or sued under the Digital Security Act (DSA) before investigation, Law Minister Anisul Huq has said.

“We are thinking about incorporating a provision in the Digital Security Act so that no case is filed and none can be arrested under this law before an inquiry into the allegations is conducted,” he told The Daily Star last night. “I have been engaged with the office of the Human Rights Commission in Geneva for the last few months for sharing information regarding the best practices of the Digital Security Act all over the world. I will engage in a dialogue on the same issue next week. I have a plan to form a monitoring team so that there can be no scope to abuse the law.” Voices against the controversial DSA have grown even louder after the death of writer Mushtaq Ahmed, who died in Kashimpur High-Security Jail-3 in Gazipur on Thursday.

ছড়িয়ে দিনঃ
  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share

আপনার মতামত জানানঃ