Trial Run

কোভ্যাক্স থেকে ১ কোটির বেশি টিকা পাচ্ছে বাংলাদেশ

ছবি: সংগৃহীত

টিকার বৈশ্বিক জোট কোয়ালিশন ফর ভ্যাকসিন (কোভ্যাক্স) থেকে ১ কোটি ৯ লাখ ৮ হাজার টিকা পাচ্ছে বাংলাদেশ। বিশ্বজুড়ে বিনামূল্যে টিকা সরবরাহ সংক্রান্ত কোভ্যাক্স-পরিকল্পনায় এমনটাই প্রকাশ পেয়েছে।

এ কর্মসূচির আওতায় কোন কোন দেশ মে মাসের শেষ নাগাদ করোনার টিকা পেতে যাচ্ছে তার তালিকা প্রকাশ হয়েছে ২ মার্চ। সেখানে টিকার সংখ্যাও উল্লেখ করা হয়েছে। ১৪২ দেশে ২৩ কোটি ৭ লাখ অক্সফোর্ড/অ্যাসট্রাজেনেকা টিকা বিতরণ করা হবে আগামী তিন মাসে। কোভাক্স একে ‘মহামারি মোকাবিলায় একমাত্র বৈশ্বিক সমাধান’ হিসেবে উল্লেখ করেছে।

করোনা প্রতিরোধে দরিদ্র এবং মধ্যম আয়ের দেশগুলোকে বিনা মূল্যে টিকা সরবরাহ করতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) নেতৃত্বে বৈশ্বিক উদ্যোগ হলো কোভ্যাক্স। এই উদ্যোগে প্রথম টিকা পেয়েছে আফ্রিকার দেশ ঘানা। কোভ্যাক্স কর্মসূচিতে ১৯৮টি দেশ অংশ নিয়েছে। তবে সব দেশই প্রথম দফায় টিকা সরবরাহের আওতায় আসছে না।

গরিব দেশগুলো ধনীদের চেয়ে টিকাদানে অনেক পিছিয়ে রয়েছে। টিকা মজুত করে রাখার জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান তেদরোস আধানোম গেব্রেয়াসুস ১ মার্চ ধনী দেশগুলোর সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, ‘আমরা বিশ্বের সব দুর্দশাগ্রস্ত মানুষকে সুরক্ষা দিতে চাই।’

কোভ্যাক্স কর্মসূচির আওতায় জুনের আগে বাংলাদেশ পাবে ১ কোটি ৯ লাখ ৮ হাজার টিকা। এ ছাড়া বেশি টিকা পেতে যাওয়া অপর দেশগুলোর মধ্যে পাকিস্তান ১ কোটি ৪৬ লাখ ৪০ হাজার, নাইজেরিয়া ১ কোটি ৩৬ লাখ ৫৬ হাজার, ইন্দোনেশিয়া ১ কোটি ১৭ লাখ ৪ হাজার ৮০০ ও ব্রাজিল ৯১ লাখ ২২ হাজার ৪০০ টিকা পাবে। তালিকায় এর পরে পাঁচটি দেশ রয়েছে। এর মধ্যে ইথিওপিয়া ৭৬ লাখ ২০ হাজার, ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অব দ্য কঙ্গো ৫৯ লাখ ২৮ হাজার, মেক্সিকো ৫৫ লাখ ৩২ হাজার, মিসর ৪৩ লাখ ৮৯ হাজার ৬০০ ও ভিয়েতনাম ৪১ লাখ ৭৬ হাজার টিকা পাবে।

ইরান, মিয়ানমার, কেনিয়া ও উগান্ডাও টিকা পাওয়ার তালিকায় রয়েছে। প্রতিটি দেশ ৩০ লাখের বেশি টিকা পাবে। মে মাসের শেষ দিকে ভারতও কোভ্যাক্সের টিকার বড় সরবরাহ পেতে পারে। প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপদেশ টুভালু ৪ হাজার ৮০০ ডোজ টিকা পাবে। নাউরো ও মোনাকো পাবে মাত্র ৭ হাজার ২০০ ডোজ টিকা।কোভ্যাক্স কর্মসূচিতে এ বছর শেষ হওয়ার আগে ৯২টি দরিদ্র দেশের ২৭ শতাংশ জনগণকে টিকা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে।

কোভ্যাক্স প্রথম দফায় অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও অক্সফোর্ডের ২৩ কোটি ৭ লাখ ডোজ টিকা সরবরাহ করবে। ফাইজার ও বায়োএনটেকের ১২ লাখ ডোজ টিকাও এর মধ্যে থাকবে। তবে ফাইজার ও বায়োএনটেকের টিকা বিশেষ তাপমাত্রায় সুরক্ষিত রাখা প্রয়োজন। দুই ধরনের টিকার ক্ষেত্রেই দুটি ডোজ নেওয়া প্রয়োজন।

ঘানা, আইভরি কোস্ট, দক্ষিণ কোরিয়া, ভারত ও কলম্বিয়া প্রথম দফায় কোভ্যাক্সের টিকা পেয়েছে। ২ মার্চ নাইজেরিয়া, অ্যাঙ্গোলা, কম্বোডিয়াতেও কোভ্যাক্সের প্রথম দফার টিকা পৌঁছেছে। কঙ্গোতেও টিকা পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

কিছু ধনী দেশও কোভ্যাক্সের টিকা বিতরণের তালিকায় ছিল। এর মধ্যে দক্ষিণ কোরিয়া ২২ লাখ ডোজ, কানাডা ১৬ লাখ, সৌদি আরব ১৫ লাখ, সিঙ্গাপুর ২ লাখ ৪৫ হাজার ও নিউজিল্যান্ড ২ লাখ ১১ হাজার টিকা পাওয়ার কথা। কোভ্যাক্স কর্মসূচির আওতায় যেসব টিকা বিতরণ করা হবে তা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদিত হতে হবে। নোভাভ্যাক্স কোভ্যাক্সকে ১১০ কোটি ডোজ টিকা দেবে। সানোফি-জিএসকে, জনসন অ্যান্ড জনসনের সঙ্গেও কোভ্যাক্সের চুক্তি রয়েছে।

এসডব্লিউ/এমএন/ এফএ/১৩০০

ছড়িয়ে দিনঃ
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    3
    Shares

আপনার মতামত জানানঃ