Trial Run

আইনপ্রয়োগের চিত্র ও গণমাধ্যম: ২০ ডিসেম্বর ২০২০

স্টেটওয়াচ রিসার্চ নেটওয়ার্ক কাজ করছে বাংলাদেশে আইনপ্রয়োগের সার্বিক চিত্র তুলে ধরার পাশাপাশি মতপ্রকাশের স্বাধীনতা সংক্রান্ত বাস্তবতা নিয়ে। এর অংশ হিসেবে স্টেটওয়াচ নিউজে আমরা প্রতিদিনকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত খবরাখবরগুলো সংক্ষেপে তুলে ধরার উদ্যোগ নিয়েছি। প্রতিদিন নিম্নোক্ত মাধ্যমসমূহ থেকে সংবাদগুলো সংগ্রহ ও তা নথিবদ্ধ করছে আমাদের কর্মীরা: প্রথম আলো, কালের কণ্ঠ, যুগান্তর, সমকাল, নয়া দিগন্ত, ইত্তেফাক, দেশ রূপান্তর, ডেইলি স্টার, নিউ এজ, দ্য ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেস, বাংলা ট্রিবিউন, বিডিনিউজ২৪ ডটকম, আমাদের সময়, মানবজমিন। আমরা আশা করি, এই প্রতিবেদন নিয়মিত প্রকাশের মাধ্যমে জনগণের তথ্যপ্রাপ্তির অধিকার আরো শক্তিশালী হবে।

২০ ডিসেম্বর ২০২০, রবিবার, ৫ পৌষ ১৪২৭, পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত
আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত নির্বাচিত খবরের সার-সংক্ষেপ

নান্দাইলে গৃহবধূ অপহরণ
মামলা নিতে ২০ হাজার টাকা দাবি পুলিশের

যুগান্তর
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

নান্দাইলে লিমা আক্তার নামে দুই সন্তানের জননীকে অপহরণ করার ঘটনায় অভিযোগ দায়ের করলেও মামলা নিচ্ছে না থানা পুলিশ। মামলা না নেওয়ার নেপথ্যে বাদীর কাছ থেকে বিশ হাজার টাকা দাবি। বাদী আল আমিন মিয়া জেলা পুলিশ সুপার বরাবর অভিযোগ দায়ের করেন। জানা গেছে, অপহৃত লিমা আক্তার নান্দাইলের নিজ বানাইল গ্রামের আল আমিনের স্ত্রী। ১০ নভেম্বর সন্ধ্যার পর একই গ্রামের প্রতিবেশী মো. তপু আকন্দ তার সহযোগীদের নিয়ে সিএনজিযোগে সুকৌশলে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

পরে এ ঘটনায় স্বামী আল আমিন তার দুই শিশু সন্তান বর্ষা আক্তার (২০ মাস) ও বৃষ্টি আক্তারকে (৭) কাঁধে করে নিয়ে নিজে বাদী হয়ে নান্দাইল মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন। কিন্তু অভিযোগ দায়েরের এক সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও থানা পুলিশ এ ঘটনার মামলা নিচ্ছে না।

বাদী জানান, লিখিত অভিযোগ দায়েরের পর নান্দাইল মডেল থানার উপ-পরিদর্শক আসাদুজ্জামান তদন্তে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পেলেও তার যাতায়াত খরচ বাবদ তিন হাজার টাকা চাইলে ১৫০০ টাকা দিয়ে বিদায় দেন। কিন্তু পরবর্তীতে মামলা এফআইআর করার কথা বললে এসআই আসাদুজ্জামান উক্ত বাদীর কাছে ২০ হাজার টাকা দাবি করেন। এসআই আসাদুজ্জামান জানান, আমি তদন্ত করে বিষয়টি ওসিকে জানিয়েছি, মামলা এফআইআর করার দায়িত্ব আমার না।

 

জেলে ঢুকলেই নাম যাবে ডাটাবেজে, পালাতে পারবে না জামিনের আসামি

বাংলা ট্রিবিউন
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

কারাবন্দিদের নিয়ে তৈরি ডাটাবেজের কাজ শেষ হচ্ছে খুব শিগগিরই। শুধু দাগি অপরাধী কিংবা দীর্ঘদিন কারাবন্দি নয়, একদিনের জন্য কারাগারে গেছে, এমন ব্যক্তির তথ্যও থাকবে। ক্লিকের ব্যবধানেই জানা যাবে কোন বন্দি কোন কারাগারে আছে, তার অপরাধের ধরন, কী কারণে কারাগারে যেতে হলো, মামলার সংখ্যা, স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানা, আদালতে হাজিরার তারিখসহ যাবতীয় তথ্য। ওই বন্দি কতদিন ও কতবার জেল খেটেছে, থাকবে সেই তথ্যও।

ন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন মনিটরিং সেন্টারের (এনটিএমসি) তত্ত্বাবধানে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব এই ডাটাবেজের কাজ করছে।

ডাটাবেজ তৈরির পর জাতীয় পরিচয়পত্রের সার্ভার, বিমানবন্দর ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের সঙ্গে যুক্ত করা হবে ডাটাবেজটি। এতে জামিনে বেরিয়ে পালিয়ে যাওয়ার পথও বন্ধ হবে। ডাটাবেজের সঙ্গে যুক্ত কর্মকর্তারা বলছেন, এখানে কারাবন্দি মানেই কিন্তু অপরাধী নয়। আদালতের মাধ্যমে দোষী সাব্যস্ত না হওয়া পর্যন্ত তাকে অপরাধী বলা যায় না। পৃথিবীর অনেক দেশেই এ ধরনের ডাটাবেজ আছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের অংশ হিসেবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সব অধিদফতরকেই ডিজিটালাইজড করার কাজ চলছে। এর অংশ হিসেবে কারাবন্দিদের এই ডাটাবেজ তৈরি হচ্ছে। আশা করি এটি ভালো ফল বয়ে আনবে।

 

প্রকাশিত সংবাদে এমপি দবিরুলের প্রতিবাদ

সমকাল
বিভাগ: গণমাধ্যম

‘বনের জমি দখলে শীর্ষ দশে আ’লীগের এমপি দবিরুল’ শিরোনামে ১৫ ডিসেম্বর সমকালে প্রকাশিত সংবাদের একাংশের প্রতিবাদ জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের এমপি দবিরুল ইসলাম। জাতীয় সংসদের প্যাডে ১৬ ডিসেম্বরে সই করা এক প্রতিবাদলিপিতে তিনি বলেছেন, ‘ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে-তার দখলে রয়েছে ৭২ দশমিক ৫৫ একর বনভূমি। এই জমিতে চা বাগান ও চাষাবাদ করা হচ্ছে। দক্ষিণ পাড়িয়া মৌজার অর্ধশতাধিক দাগ উল্লেখ করে মন্ত্রণালয় তাদের প্রতিবেদনে বলছে, এই জমির মাঠ পর্চা বন বিভাগের নামে’-যা সঠিক নয়।

প্রতিবাদপত্রে তিনি বলেন, পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়, স্থানীয় বন বিভাগের অফিস ও জেলা প্রশাসনের কেউ কখনও আমাকে লিখিত বা মৌখিকভাবে এই সম্পর্কে কোনো কিছুই অবহিত করেনি। আমি দলিলসূত্রে জমির প্রকৃত মালিকগণের কাছ থেকে উপরে উল্লেখিত জমিসমূহ ক্রয় করি, যা তারা দীর্ঘদিন ধরে চাষাবাদ করে আসছিলেন। উল্লেখ করা যেতে পারে যে, উল্লেখিত ওই জমিতে বন বিভাগের কোনো গাছ, অফিস কিংবা অন্যান্য কোনো কার্যক্রম আমার জ্ঞাতসারে কোনোদিন পরিলক্ষিত হয়নি।

প্রতিবেদকের বক্তব্য

বন, পরিবেশ ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। প্রতিবেদনে প্রতিবেদকের নিজস্ব কোনো বক্তব্য বা তথ্য উল্লেখ করা হয়নি। ফলে সংবাদটি কোনোভাবেই ভিত্তিহীন বা মিথ্যা বলার সুযোগ নেই। স্থানীয় বন বিভাগ ও প্রশাসনের সহায়তায় বনের জমি জবরদখলকারীদের এই তালিকা তৈরি করা হয়েছে বলে মন্ত্রণালয়ের ওই প্রতিবেদনে স্পষ্টভাবে উল্লেখ করা হয়েছে। প্রকাশিত প্রতিবেদনেও বিষয়টি উল্লেখ রয়েছে।

 

বরগুনায় দুর্ঘটনায় সাংবাদিক নিহত, সড়ক অবরোধ

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
বিভাগ: গণমাধ্যম

বরগুনার পাথরঘাটায় আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর প্রিজন ভ্যানের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী এক সাংবাদিক নিহত হয়েছেন।

উপজেলার কাকচিড়া বাইনচটকি এলাকায় রোববার এই দুর্ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

নিহত মোস্তাফিজুর রহমান রাব্বি (২৪) ঢাকা প্রতিদিন পত্রিকার পাথরঘাটা উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত ছিলেন। মেহেদি হাসান জানান, এই ঘটনায় বরগুনা-পাথরঘাটা সড়ক অবরুদ্ধ করে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর প্রিজন ভ্যান ভাঙচুর করে চালক মিজানুর রহমানসহ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর চার সদস্যকে বাইনচটকি স্কুলে আটক করে রাখে স্থানীয়রা।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে জেলা পুলিশের কয়েকটি দল ঘটনাস্থলে রয়েছে বলে তিনি জানান।

ছড়িয়ে দিনঃ
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares