Trial Run

নৌকা প্রার্থীর আত্মীয় নির্বাচনি কর্মকর্তা, অবরুদ্ধ প্রতিপক্ষ!

বামে কাজী শহিদুল ইসলাম, ডানে এবিএম গোলাম কবির

পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রার্থীর ছোটো ভাইয়ের শ্বশুর উপজেলা সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা। বিএনপি প্রার্থীর অভিযোগ, নির্বাচনি কর্মকর্তা নৌকা প্রার্থীর আত্মীয় হওয়ায় তার নেতাকর্মীদের হুমকি, মারধর করে ঘরে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। অন্যদিকে নৌকার নেতাকর্মীরা ব্যাপক প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে।

বরগুনার বেতাগী পৌরসভা নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা কাজী শহিদুল ইসলামের বিরুদ্ধে স্বজনপ্রীতির এই অভিযোগ উঠেছে। বিএনপি মনোনিত প্রার্থী হুমায়ুন কবির মল্লিক এই অভিযোগ করেন। তার অভিযোগ, সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষ নিয়ে কাজ করছেন।

বরগুনার বেতাগী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা কাজী শহিদুল ইসলাম বেতাগী পৌরসভা নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করছেন। সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা কাজী শহিদুল ইসলাম আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী এবিএম গোলাম কবিরের মধ্যে আত্মীয়তার সম্পর্ক রয়েছে। এবিএম গোলাম কবিরের আপন ছোট ভাই আহসানুল কবির রাসেলের শ্বশুর তিনি। নিকটাত্মীয় হওয়ায় নির্বাচনের শুরু থেকেই পক্ষপাতমূলক আচরণ করছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বিএনপি প্রার্থী হুমায়ুন কবির মল্লিক জানান, বেতাগী পৌরসভা নির্বাচনের মনোনয়নপত্র দাখিলের পর থেকেই বিভিন্নভাবে বিএনপির নেতাকর্মীকে হুমকি ধামকি দিয়ে আসছেন ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের প্রার্থী এবিএম গোলাম কবির ও তার সমর্থকরা। আওয়ামী লীগ প্রার্থী ও তার কর্মী সমর্থকরা পুরোদমে তাদের নির্বাচনি প্রচারণা চালাচ্ছেন। তবে আমাদের কর্মীরা ঘর থেকেই বের হতে পারছেন না। আমাদের কর্মীদের মারধর, মাইক ভাঙচুর ও প্রচারণায় বাঁধা দেওয়া হচ্ছে। বিষয়গুলো সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাকে জানানোর পরেও তিনি কোনও ব্যবস্থা নেননি। আবার অনেক সময় অভিযোগ জানাতে কল দিলে তিনি তা রিসিভ করেন না।

পক্ষপাতমূলক আচরণের কারণে হুমায়ুন কবির মল্লিক সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে শঙ্কার কথা জানান। তিনি সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাকে অন্যত্র বদলির দাবি জানান।

এ বিষয়ে বেতাগী পৌর নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা কাজী শহিদুল ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে বলেন, আওয়ামী লীগ প্রার্থী আমার আত্মীয় এটা অস্বীকার করার কিছু নেই। তবে আমি তার পক্ষে কাজ করছি এটা সত্য নয়। এই নির্বাচনে সব বিষয়ে দায়বদ্ধ নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা। আমি শুধুমাত্র তার সহকারী।

অভিযোগের বিষয়ে বেতাগী পৌর নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা দিলীপ কুমার হাওলাদার সংবাদমাধ্যমকে বলেন, সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার পক্ষপাতিত্বের সুযোগ নেই। কোনও প্রার্থীর যদি কোনও অভিযোগ থাকে, তারা সরাসরি আমার সঙ্গে যোগাযোগ করবে। আমি ব্যবস্থা নিবো।

এসডব্লিউ/নাসি/১৩০৩

ছড়িয়ে দিনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আপনার মতামত জানানঃ