Trial Run

শরীয়তপুরে চাকরি দেয়ার আশ্বাসে গৃহবধূকে ‘ধর্ষণ’

শরীয়তপুরে এনজিওতে চাকরি দেয়ার আশ্বাসে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার এ ঘটনায় শরীয়তপুর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা করেছেন ওই গৃহবধূ।

অভিযুক্ত রিজভি সরদার (২৬) শরীয়তপুর সদর উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ মাহমুদপুর গ্রামের মৃত তেলাম সরদারের ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, অভিযুক্ত রিজভি সরদারের ছোট ভাইয়ের সঙ্গে শরীয়তপুর সদরের বিএম আইডিয়াল কলেজে পড়তো ওই নারী। সেই সুবাদে রিজভির সাথে পরিচয় হয় ওই গৃহবধূর। প্রবাসী স্বামীর সাথে বনিবনা না হওয়ায় এবং সংসার চালাতে চাকরি করবেন বলে রিজভির সঙ্গে আলোচনা করেন তিনি। বেশ কিছুদিন ধরে ওই গৃহবধূকে এনজিওতে চাকরি দেয়ার কথা বলে রবিবার চাকুরির সাক্ষাৎকারের জন্য তাকে গোসাইরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। ওই হাসপাতালের টিকিট কাউন্টারের দায়িত্বে থাকা সোহাগের সরকারি কোয়াটারে নিয়ে হাত ও মুখ বেঁধে গৃহবধূকে ধর্ষণ করে রিজভি। স্থানীয়রা টের পেয়ে দুজনকে আটক করে।

ভূক্তভোগী ওই গৃহবধূ অভিযোগ, ‘এনজিওতে চাকরির সাক্ষাৎকারের নাম করে গোসাইরহাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় রিজভি। সেখানে আমার হাত ও মুখ বেঁধে আমার সাথে খারাপ কাজ করে। আমি সব হারিয়ে সঠিক বিচার পেতে রিজভির বিরুদ্ধে মামলা করেছি।’

মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী মৃধা নজরুল কবির বলেন, ট্রাইব্যুনাল মামলাটি এফআইআর হিসেবে দায়ের করার জন্য সংশ্লিষ্ঠ থানাকে নির্দেশে দিয়েছেন। এ ছাড়া মেয়েটির মেডিকেল পরীক্ষার জন্য আবেদন করা হয়েছে।

 

ছড়িয়ে দিনঃ
  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    3
    Shares

আপনার মতামত জানানঃ