Trial Run

আইনপ্রয়োগের চিত্র ও গণমাধ্যম: ৪ জানুয়ারি ২০২১

স্টেটওয়াচ রিসার্চ নেটওয়ার্ক কাজ করছে বাংলাদেশে আইনপ্রয়োগের সার্বিক চিত্র তুলে ধরার পাশাপাশি মতপ্রকাশের স্বাধীনতা সংক্রান্ত বাস্তবতা নিয়ে। এর অংশ হিসেবে স্টেটওয়াচ নিউজে আমরা প্রতিদিনকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত খবরাখবরগুলো সংক্ষেপে তুলে ধরার উদ্যোগ নিয়েছি। প্রতিদিন নিম্নোক্ত মাধ্যমসমূহ থেকে সংবাদগুলো সংগ্রহ ও তা নথিবদ্ধ করছে আমাদের কর্মীরা: প্রথম আলো, কালের কণ্ঠ, যুগান্তর, সমকাল, নয়া দিগন্ত, ইত্তেফাক, দেশ রূপান্তর, ডেইলি স্টার, নিউ এজ, দ্য ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেস, বাংলা ট্রিবিউন, বিডিনিউজ২৪ ডটকম, আমাদের সময়, মানবজমিন। আমরা আশা করি, এই প্রতিবেদন নিয়মিত প্রকাশের মাধ্যমে জনগণের তথ্যপ্রাপ্তির অধিকার আরো শক্তিশালী হবে।

৪ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার, ২০ পৌষ ১৪২৭, পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত
আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত নির্বাচিত  খবরের সার-সংক্ষেপ

যেকোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রস্তুত পুলিশ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

দেশের পুলিশ বাহিনী যেকোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রস্তুত রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। ৩৭তম বিসিএস পুলিশ ব্যাচের শিক্ষানবিস সহকারী পুলিশ সুপারদের এক বছর মেয়াদী মৌলিক প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে রোববার সভাপতির বক্তব্য একথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। মন্ত্রী বলেন, দেশজুড়ে সন্ত্রাস মোকাবেলা,  জঙ্গি দমন, উপকূলীয় এলাকা জলদস্যু মুক্তকরণ, মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান চালনাসহ দেশের শান্তিশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য কাজ করে যাচ্ছে পুলিশ। “লোকবল ও থানা বৃদ্ধি, ভৌত অবকাঠামো উন্নীতকরণ ও নতুন যানবাহন সংযোজনসহ অত্যাধুনিক প্রযুক্তিনির্ভর একটি চৌকস বাহিনী হিসেবে পুলিশের ক্রমাগত উন্নয়নে সরকার সদা সচেষ্ট রয়েছে। ফলে যেকোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রস্তুত রয়েছে পুলিশ।” সকালে বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমি সারদায় অনুষ্ঠিত এই অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে গণভবন থেকে প্রধান অতিথি হিসেবে যুক্ত হন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নবীন এই কর্মকর্তাদের উদ্দেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, পুলিশের কার্যপদ্ধতি, সমাজে অপরাধের বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য ও উপাদান, দেশে প্রচলিত আইন সম্পর্কে প্রশিক্ষণে লব্ধ জ্ঞান পুলিশ বাহিনীর নবীন কর্মকর্তাদের ভবিষৎ পথচলার পাথেয় হয়ে থাকবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি প্যারেড পরিদর্শন এবং অভিবাদন গ্রহণ করেন।

প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বিভিন্ন বিষয়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনকারী নবীন পুলিশ কর্মকর্তাদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।

 

লাশ নিয়ে সড়ক অবরোধ, এসআইয়ের বাড়িতে ইট নিক্ষেপ

প্রথম আলো
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

বরিশালে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) হাতে গ্রেপ্তারের তিন দিন পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় যুবকের মৃত্যুর ঘটনায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন এলাকাবাসী। এ সময় বিক্ষুব্ধ লোকজন মহানগর ডিবির উপপরিদর্শক (এসআই) মহিউদ্দিন আহমেদের বাসায় ইট–পাটকেল নিক্ষেপ করেন। আজ রোববার সন্ধ্যায় বরিশাল নগরের সাগরদী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

শনিবার দিবাগত রাতে বরিশালের শের–ই–বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রেজাউল করিম ওরফে রেজা (৩০) নামের এক যুবকের মৃত্যু হয়। তিনি নগরের ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের সাগরদী বাজারের মাংস ব্যবসায়ী মো. ইউনুস মুনশির ছেলে। তিনি বরিশাল আইন মহাবিদ্যালয়ের শেষ বর্ষের ছাত্র ছিলেন। তাঁর পরিবারের অভিযোগ, আটকের পর পুলিশের নির্যাতনের কারণেই রেজাউলের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৯ ডিসেম্বর রাত ৮টার দিকে নগরের ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের হামিদ খান সড়কের একটি চায়ের দোকানের সামনে থেকে রেজাউলকে আটক করেন নগর ডিবির এসআই মহিউদ্দিন আহমেদ। নির্যাতনের অভিযোগ অস্বীকার করে পুলিশ কর্তৃপক্ষ বলছে, মাদকসহ রেজাউলকে গ্রেপ্তারের পর স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় কারাগারে পাঠানো হয়েছিল। তবে অভিযোগ ওঠায় ঘটনার তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি করেছে বরিশাল মহানগর পুলিশ। স্থানীয় লোকজন জানান, ময়নাতদন্ত শেষে রোববার বিকেল পাঁচটার দিকে রেজাউল করিমের লাশ নিয়ে বাড়িতে আসেন স্বজনেরা। এ সময় বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী রেজাউলের মৃত্যুর ঘটনায় দোষী পুলিশ সদস্যের বিচার দাবি করে তাঁর লাশ নিয়ে সাগরদী মাদ্রাসাসংলগ্ন মহাসড়কে যান। তাঁরা বাঁশ, কাঠ ফেলে সড়কটি অবরোধ করেন এবং টায়ার জ্বালিয়ে আগুন ধরিয়ে বিক্ষোভ করেন। এতে বরিশাল নগরে ছোট যানবাহন ছাড়াও দূরপাল্লার যাত্রী ও পণ্যবাহী পরিবহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে সন্ধ্যা ছয়টার পর বরিশাল কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলে পরিস্থিতি শান্ত করেন। এরপর যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

 

তালতলীতে ডিবির ওসির বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ

যুগান্তর
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

বরগুনার তালতলীতে নোথায়ং মগ নামের এক রাখাইনের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে এলাকার দুই সহোদরকে অভিযোগ ছাড়াই ষড়যন্ত্রমূলক আটক করে নির্যাতনের ভয় দেখিয়ে ৪০ হাজার টাকা ঘুষ গ্রহণ ও পরে রিমান্ডে নিয়ে অমানুষিক নির্যাতনের অভিযোগ করা হয়েছে। রোববার দুপুরে জেলা ডিবি পুলিশের ওসি খন্দকার জাকির হোসেন ও এসআই আশরাফের বিরুদ্ধে তালতলী প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন দুই সহোদরের ছোট ভাই মো. ইদ্রিস মুন্সী। এ সময় আটককৃত ইউসুফ মুন্সির স্ত্রী শিউলি বেগম, ইউনুচ মুন্সির স্ত্রী মোসা. রিমা বেগম ও তাদের চাচি মনি আক্তার উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন, নোথায়ং মগের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে জেলা ডিবির ওসি জাকির ও এসআই আশরাফ বিভিন্ন এলাকার নিরীহ লোকদের হয়রানি করে আসছে। এ হয়রানি থেকে বাঁচতে তারা ১ জানুয়ারি এলাকায় মানববন্ধন ও লিখিত অভিযোগ করে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করেছে। এ বিষয়ে ডিবির ওসি খন্দকার জাকির হোসেন যুগান্তরকে বলেন, আমাদের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও বানোয়াট। হত্যা মামলার তদন্তে প্রমাণ পেয়ে ইউসুফ মুন্সী ও ইউনুচ মুন্সীকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের কোনো ধরনের নির্যাতন করা এবং কারও কাছ থেকে টাকা নেওয়া হয়নি। পুলিশ সুপার মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর মল্লিক বলেন, এ বিষয়ে অভিযোগ পেলে তদন্ত করে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

Student dies in police custody
Family claims he was tortured, killed

The daily Star
Category: State Force

A 30-year-old student of law died in custody four days after he was arrested by the Detective Branch of police in Barisal. Family members of Rejaul Karim Reja said that he died because of torture and that there were numerous injury marks in his body.

Reja died yesterday morning at Sher-e-Bangla Medical College Hospital (SBMCH) where he was being treated in police custody. Director of the hospital Bakir Hossain said the young man died of excessive bleeding through his rectum and urinary tract. Grieving family members said Sub-inspector Mohiuddin Mahi of Detective Branch (DB) in Barishal beat up Reja, leading to his death.

A three-member committee headed by a deputy commissioner of Barishal Metropolitan Police was formed to investigate the matter. Police officers also said that Reja was a drug dealer and an addict and that he died because of complications related to his addiction.

Reja’s uncle Abdul Barek Hawlader said SI Mohiuddin arrested Reja around 8:00pm on December 29 at a roadside tea stall near his home on Hamid Khan Road in the city.

Reja was sent to Barisal Central Jail the next day, he said.

 

PM asks police to check cybercrimes, drug abuse

The Financial Express

Category: State force

Prime Minister Sheikh Hasina on Sunday asked the police personnel to stop cybercrimes alongside money laundering, human trafficking, terrorism, militancy, abuse of drugs, gangster culture and repression on women and children. “The most important thing is that the trend of crimes is changing with the advent of newer technologies as it is an era of technology. Cybercrimes are increasing drastically and we have to prevent it,” she said. While addressing virtually the passing-out parade of the 37th BCS batch of assistant superintendents of police (ASPs) from Ganabhaban, the Prime Minister also said that the crimes which are being committed using technology must be stopped, reports BSS.

Bangladesh Police organised the programme at the Bangladesh Police Academy in Rajshahi.

The premier called upon the police personnel to always serve the people with honesty, dedication, moral values and discipline and thus achieve the trust, confidence and love of the people. “In case of discharging professional duties, the police personnel have to give utmost priority to the people’s fundamental rights, human rights and the rule of law,” she said.

ছড়িয়ে দিনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •