Trial Run

পশ্চিমবঙ্গকে ‘গুজরাট’ বানানোর অঙ্গীকার বিজেপি সভাপতি দিলীপের

ছবি : হিন্দুস্তান টাইমস

ভারতের পশ্চিমবঙ্গকে ‘গুজরাট’ বানানোর অঙ্গীকার করেছেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ এমপি। তিনি আজ (সোমবার) বারাসতে এক কর্মসূচিতে এ সংক্রান্ত মন্তব্য করেন। তাঁর দাবি, বাংলাদেশ থেকে ‘সিমি’, জামাত, আলকায়েদার লোকেরা এসে পশ্চিমবঙ্গে ঘাঁটি গেড়েছে।

বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘মুর্শিদাবাদ থেকে ঝাঁকে ঝাঁকে উগ্রপন্থি ধরা পড়ছে। বাংলাকে ‘কাশ্মীর’ তৈরি করার চেষ্টা হচ্ছে।’ সেজন্য রাজ্য সরকারের ক্ষমতায় থাকার অধিকার নেই বলেও বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ মন্তব্য করেন।

পশ্চিমবঙ্গকে ‘গুজরাট’ বানানোর অঙ্গীকার প্রসঙ্গে বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষকে কটাক্ষ করে রাজ্যের পৌর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী  ফিরহাদ হাকিম বলেছেন,  ‘দিলীপ ঘোষ চলে যাক গুজরাটে, আমরা বাংলায় ভালো আছি। তিনি আরও বলেন,  ‘গুজরাটে দু’হাজার   মানুষ খুন হয়েছে। অনেকেই এনকাউন্টার হয়ে মারা গেছেন।  সেজন্য আমরা এটাকে ‘গুজরাট’ করতে চাই না। বাংলাকে বাংলাই রাখতে চাই।’

এ প্রসঙ্গে রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘গুজরাট মডেল কিংবা উত্তরপ্রদেশ মডেল এখানে চলবে না, এটা বাংলা।  আগে উত্তরপ্রদেশে যে অরাজকতা চলছে, তা বন্ধ করুন, তারপর বাংলা নিয়ে ভাববেন।’

এদিকে, বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ আজ রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে আসন্ন নির্বাচনে পরাজিত করবেন বলে চ্যালেঞ্জ করেছেন। তিনি আজ বারাসতে এ সংক্রান্ত মন্তব্য করেন।

দিলীপ ঘোষ আজ খাদ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে বলেন, ‘উনি কোথায় দাঁড়াবেন ঠিক করে নিন। আমি এখানে জ্যোতিপ্রিয়কে চ্যালেঞ্জ করে যাচ্ছি, যেখানে দাঁড়াবেন সেখানে হারাবো আমরা।’

বিজেপি সভাপতির পাল্টা জবাবে রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী ও উত্তর ২৪ পরগণা জেলা তৃণমূলের সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘নির্বাচনে বিজেপি এই জেলায়  ‘জিরো’ হবে। জেলায় ৩৩-০ ফল হবে। বিজেপি শূন্য পাবে। জেলায় নাকানিচোবানি খাইয়ে ওঁদেরকে হারিয়ে দেবো। জেলায় ৯ হাজারের মতো বুথ আছে। ৯ হাজার বুথের মধ্যে ১ হাজার বুথে ওঁরা এজেন্ট দিয়ে দেখাক।’

২০২১ সালে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে এ রাজ্যে ২০০ আসন দখলের টার্গেট নিয়ে এগোচ্ছে বিজেপি। এখন থেকেই বিজেপি নেতারা মাঠে নেমেছেন। বিশেষ করে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ এমপি চা-চক্র থেকে শুরু করে বিভিন্নভাবে জনসংযোগ বৃদ্ধির কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। অন্যদিকে, রাজ্যের শাসকদল তৃণমূলের নেতা-নেত্রীরাও এখন থেকে বিজেপি ক্ষমতায় এলে রাজ্যবাসী কীভাবে দুর্ভোগে পড়তে পারেন সেসব সম্পর্কে মানুষজনকে বোঝানো শুরু করেছেন।

ছড়িয়ে দিনঃ
  • 36
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    36
    Shares