Trial Run

মরক্কোয় ৮ কোটি বছর আগের পর্বতমালার সন্ধান !

ছবি: সংগৃহীত

উত্তর-পশ্চিম মরক্কোয় এক বিশাল পর্বতমালার সন্ধান পাওয়া গেছে। যার জন্ম নাকি আজ থেকে প্রায় ৮ কোটি বছর আগে। ভূপৃষ্ঠের ৪৪০ মাইল উপর থেকে নাসার মহাকাশযান নিখুঁত ছবি তুলে নিয়ে এসেছে। ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করা মাত্রই নড়েচড়ে বসেছেন নেটিজেনরা। সুবিশাল একটি পর্বতমালা। নাসার ইনস্টাগ্রাম পোস্টে জানানো হয়েছে, এই সুবিশাল পর্বতমালার জন্ম হয়েছিল আজ থেকে প্রায় ৮ কোটি বছর আগে। তখন আধুনিক পৃথিবীই ছিল না। দেশটেশ তো বহু দূরের কথা। এখনকার চেনা, জানা মহাদেশগুলিও ছিল না।

এই পর্বতমালার জন্মবৃত্তান্ত নিয়ে নাসা জানিয়েছে, ভূগর্ভে আফ্রিকান ও ইউরেশিয়ান দুই দৈত্যাকার টেকটনিক প্লেটের মধ্যে প্রায় ৮ কোটি বছর আগে প্রবল ধাক্কা লাগে। সেই ধাক্কাধাক্কিতেই টেথিস মহাসাগর মন্থন করে মাথা তুলে দাঁড়িয়েছিল সেই বিশাল পর্বতমালা। ভেবে দেখার কথা যে, হিমালয় পর্বতমালাও এই টেথিস মহাসাগর মন্থন করেই মাথা তুলে দাঁড়িয়েছিল প্রায় ৪ কোটি বছর আগে। আর আফ্রিকান-ইউরেশিয়ান এই পর্বতমালা তৈরি হয়েছে আনুমানিক ৮ কোটি বছর আগে। অর্থাৎ হিমালয়েরও দ্বিগুণ বয়স এই পর্বতমালার।

কী দিয়ে গড়া ছিল সেই পর্বতমালা? ইনস্টাগ্রামে নাসার পোস্ট জানাচ্ছে, এই পর্বতমালা তৈরিতে কোন কোন উপকরণ ছিল, তার কথা। বেলেপাথর, চুনাপাথর, জিপসাম, মাটি ইত্যাদির সমন্বয়ে যে পাথর গড়ে উঠেছিল, তাতেই তৈরি হয়েছিল এই পর্বতমালা। নাসার ‘টেরা’উপগ্রহ পৃথিবীর কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করতে করতে ৪৪০ মাইল উপর থেকে সেই পর্বতমালার ছবি তুলেছিল ২০০৭ সালের ৫ নভেম্বর। পৃথিবীর কক্ষপথ থেকে ভূ-পর্যবেক্ষণের জন্য প্রথম যে উপগ্রহটিকে পাঠানো হয়েছিল, সেটা- টেরা। উৎক্ষেপণ হয়েছিল ১৯৯৯ সালে।

আলোর বর্ণালীর যে অংশটি আমরা খালি চোখে দেখতে পাই না, সেই ইনফ্রারেড লাইট বা অবলোহিত আলোকরশ্মিতে পর্বতমালাটির ছবি তুলেছিল নাসার উপগ্রহ। যাতে পর্বতমালার পাথরের বিভিন্ন স্তর খুব ভাল ভাবে বোঝা যায়। টেরা উপগ্রহে থাকা ‘অ্যাস্টার’ যন্ত্রে মাধ্যমে তোলা হয়েছিল সেই ছবি। আর তা নিয়েই সাড়া পড়ে গেছে গোটা পৃথিবীতে।

এসডব্লিউ/এমএন/ এফএ/১৩৪০

ছড়িয়ে দিনঃ
  • 181
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    181
    Shares

আপনার মতামত জানানঃ