Trial Run

ফরিদপুরে ‘বলাৎকারের’ শিকার মাদ্রাসাছাত্রের মৃত্যু

 

ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলায় আব্দুর রহমান নামে আট বছর বয়সী এক মাদ্রাসাছাত্র ‘বলাৎকারের’ শিকার হয়ে মারা গেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

মৃত আব্দুর রহমান উপজেলার আব্দুল সিকদারের ডাঙ্গি মাদ্রাসার মক্তব (তৃতীয়) শ্রেণির ছাত্র ছিলো। তার বাড়ি ফরিদপুরের সালথা উপজেলার সোনাপুর ইউনিয়নের রাঙ্গারদিয়া গ্রামে। পিতার নাম আব্দুস সোবহান।

ঐ মাদ্রাসার শিক্ষক মো. আব্দুল্লাহ জানান, বুধবার ফজরের নামাজের ওজুর সময় ওই শিক্ষার্থী বমি করছিল। কয়েক দফা বমি করলে তাকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নেওয়া হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. ওয়াহিদুজ্জামান জানান, প্রাথমিকভাবে যৌন হয়রানির আলামত পাওয়া গেছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

এই ঘটনায় সুষ্টু তদন্ত করে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন নিহত ছাত্রের স্বজনরা। শিশু রহমান এর পিতা আব্দুস সোবহান জানান, মাদ্রাসা থেকে খবর পেয়ে মুমূর্ষু অবস্থায় তাকে ফরিদপুর হাসপাতালে নিয়ে আসি। তার শরীরে নির্যাতন চালানো হয়েছে সেটা স্পষ্ট। এ ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তিনি।

ফরিদপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাশেদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এই ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ওই মাদরাসার পরিচালক, দুই শিক্ষক ও দুইজন ছাত্রকে থানায় আনা হয়েছে। একই সাথে তিনি জানান, পরিবার অভিযোগ দিলে তারা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

ছড়িয়ে দিনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •