Trial Run

বিএনপির প্রার্থীর প্রস্তুতি সভায় হামলার অভিযোগ

হামলার বিষয় তুলে ধরে সংবাদ সম্মেলন করেন বিএনপির প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন

ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীর হোসেনের নির্বাচনী প্রচারের প্রস্তুতি সভায় হামলা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে দক্ষিণখান বাজার সংলগ্ন গার্লস হাইস্কুল রোডের নূর নিবাসের নিচ তলায় এ হামলা হয়। ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন আজ বিকেলে  তাঁর উত্তরার বাসায় সংবাদ সম্মেলন করে এ অভিযোগ করেন। এ সময় বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

এস এম জাহাঙ্গীর অভিযোগ করেন. হামলায় ছয়জন আহত হয়েছেন। হামলাকারীরা দুটি গাড়ি, চারটি মোটরসাইকেল এবং চেয়ার-টেবিল ভাঙচুর করেছে। তাঁর অভিযোগ, ৪৮ নম্বর ওয়ার্ডে তাঁর নির্বাচনী প্রচারের বিষয়ে প্রস্তুতি সভার জন্য নেতা-কর্মীরা বসেছিলেন। এ সময় স্থানীয় ছাত্রলীগ, যুবলীগসহ আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীরা হকিস্টিক নিয়ে অতর্কিতে হামলা চালায়। ঘটনার সময় ৪৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও দক্ষিণখান থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আকবরও সেখানে ছিলেন।

বিএনপির প্রার্থী জাহাঙ্গীর জানান, হামলার ঘটনা নির্বাচন কমিশনে লিখিতভাবে এবং দক্ষিণ খান থানায় মৌখিকভাবে জানানো হয়েছে।

অবশ্য দক্ষিণখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (​ওসি) শিকদার মো. শামীম হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ‘দক্ষিণখানে এখন পর্যন্ত কোনো নির্বাচনী ক্যাম্প হয়নি। কোথাও হামলার কথাও আমরা শুনিনি।’

সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা-১৮ আসনের উপ নির্বাচন পরিচালনায় বিএনপির প্রধান সমন্বয়ক ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমানুল্লাহ আমান বলেন, প্রতীক দেওয়ার আগেই প্রস্তুতি সভায় ‘আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীরা’ আক্রমণ করেছে। বিগত নির্বাচনে তারা বিএনপি নেতা-কর্মীদের ওপর আক্রমণ করেছে, মিথ্যা মামলা দিয়েছে। এই নির্বাচনেও তারা এই কাজ শুরু করছে। তিনি হামলার ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আবদুস সালাম, হাবিবুর রহমান, বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য নাজিম উদ্দিন আলম, এই আসনে বিএনপির আরেক মনোনয়নপ্রত্যাশী এম কফিল উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ছড়িয়ে দিনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •