Trial Run

আইনপ্রয়োগের চিত্র ও গণমাধ্যম: ১৩ জানুয়ারি ২০২১

স্টেটওয়াচ রিসার্চ নেটওয়ার্ক কাজ করছে বাংলাদেশে আইনপ্রয়োগের সার্বিক চিত্র তুলে ধরার পাশাপাশি মতপ্রকাশের স্বাধীনতা সংক্রান্ত বাস্তবতা নিয়ে। এর অংশ হিসেবে স্টেটওয়াচ নিউজে আমরা প্রতিদিনকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত খবরাখবরগুলো সংক্ষেপে তুলে ধরার উদ্যোগ নিয়েছি। প্রতিদিন নিম্নোক্ত মাধ্যমসমূহ থেকে সংবাদগুলো সংগ্রহ ও তা নথিবদ্ধ করছে আমাদের কর্মীরা: প্রথম আলো, কালের কণ্ঠ, যুগান্তর, সমকাল, নয়া দিগন্ত, ইত্তেফাক, দেশ রূপান্তর, ডেইলি স্টার, নিউ এজ, দ্য ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেস, বাংলা ট্রিবিউন, বিডিনিউজ২৪ ডটকম, আমাদের সময়, মানবজমিন। আমরা আশা করি, এই প্রতিবেদন নিয়মিত প্রকাশের মাধ্যমে জনগণের তথ্যপ্রাপ্তির অধিকার আরো শক্তিশালী হবে।

১৩ জানুয়ারি ২০২১, মঙ্গলবার, ২৯ পৌষ ১৪২৭, পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত
আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত নির্বাচিত  খবরের সার-সংক্ষেপ।

এমপিদের মদের আসর পুলিশ পাহারা দেয়: কাদের মির্জা

যুগান্তর
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

দেশের রাজনীতিবিদরা বিদেশে টাকা পাচার করছে এমন অভিযোগ করে বসুরহাট পৌরসভায় মেয়রপ্রার্থী মির্জা আবদুল কাদের বলেছেন, নেত্রী শেখ হাসিনা এ চোরদের কত পাহারা দেবেন?

আবদুল কাদের মির্জা বুধবার সকাল ৮টায় তার নির্বাচনী অফিসে লাইভ ভিডিওতে এসব কথা বলেন।

বসুরহাট পৌরসভায় নৌকা প্রতীকের মেয়রপ্রার্থী আবদুল কাদের আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছোটভাই।  তিনি বসুরহাট পৌরসভায় একাধিকবার নির্বাচিত মেয়র।  তার সাম্প্রতিক বক্তব্য রাজনৈতিক অঙ্গনে তোলপাড় সৃষ্টি করেছে। আজ তিনি বলেন, আমাদের পাতি নেতারা পর্যন্ত আমেরিকায় গিয়ে গাড়ি কিনেছে, বাড়ি করেছে।  সেখানে গিয়ে মাদক, নারী ও ক্যাসিনোকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ছেন।  নেত্রী শেখ হাসিনা এ চোরদের কত পাহারা দেবেন? কাদের মির্জা বলেন, সামান্য বাংলা মদের খেলে আমরা তাদের (মাদকসেবী) পিটাই, জেলে দিই। আর এমপিদের মদের আসরে গিয়ে পুলিশ স্যালুট মারে, পাহারা দেয়।

নোয়াখালীর এক এমপি বিএনপি নেতা হারুনের মাধ্যমে ৫০ লাখ টাকা বসুরহাটে পাঠিয়েছেন অভিযোগ করে আবদুল কাদের মির্জা বলেন, বিএনপি প্রার্থী জিতবেন না জেনেও আওয়ামী লীগের ওই এমপি আমাদের নির্বাচনকে বানচাল করার জন্য, প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য টাকা পাঠিয়ে অস্ত্র পাঠিয়ে অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্রে মেতে আছেন।

 

বিচ্ছিন্ন এই ঘটনা পুরো পুলিশ বাহিনীর গায়ে মাখানোর দরকার নাই: হাইকোর্ট

ইত্তেফাক
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

হাইকোর্ট বলেছে, নারায়ণগঞ্জের এই একটি ঘটনাকে পুরো পুলিশ বাহিনীর গায়ে মাখানোর দরকার নেই। বিচ্ছিন্ন ঘটনাকে বিচ্ছিন্নভাবেই তাদের দেখা উচিত। যদি কোন অনিয়ম হয়ে থাকে তাহলে তা থেকে কিভাবে উত্তরণ করা যায়, সেটা পুলিশ বাহিনীকে ভেবে দেখা উচিত।

নারায়ণগঞ্জে ধর্ষণ শেষে হত্যা ও মৃত কিশোরীর ফিরে আসার ঘটনায় বিচারিক অনুসন্ধান কমিটির উপর শুনানির এক পর্যায়ে বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ বুধবার এ মন্তব্য করেন। হাইকোর্ট বলেন, আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে যদি পুলিশ হেফাজতে থাকা অবস্থায় যদি কোন ব্যক্তিকে একটা কটু কথাও বলা হয় তাহলে সেটা অপরাধ হিসেবে দেখা হয়। নারায়ণগঞ্জের এই ঘটনায় তিন আসামি রিমান্ড শেষে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়ে বলেন, তারা ধর্ষণ শেষে ঐ কিশোরীকে হত্যা করে লাশ শীতলক্ষা নদীতে ফেলে দিয়েছেন। কিন্তু ঘটনার ৫১ দিন পর ঐ “মৃত” কিশোরী ফিরে আসায় দেশজুড়ে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে পাঁচ আইনজীবী হাইকোর্টে রিভিশন মামলা দায়ের করেন। এরপরই হাইকোর্ট বিচারিক অনুসন্ধানের আদেশ দেয়। ঐ অনুসন্ধান রিপোর্টে বলা হয়, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই শামীম আল মামুন তিন আসামিকে নির্যাতন করে ঐ ধরনের জবানবন্দি দিতে বাধ্য করে। আজ এই অনুসন্ধান প্রতিবেদনের উপর শুনানিতে তদন্ত কর্মকর্তার পক্ষে শুনানিতে আইনজীবী মনসুরুল হক চৌধুরী বলেন, বিচারিক তদন্ত কমিটির রিপোর্টে পুলিশ বাহিনীর ওপর একটা দোষ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু আমি মনে করি মামলার তদন্ত কর্মকর্তা অতিরঞ্জিত কিছু করেননি। তিনি তার আওতার মধ্যে থেকেই আসামি গ্রেফতার ও রিমান্ডে নিয়েছেন। আসামিদের কোনও নির্যাতন করা হয়নি। কারণ আসামিরা জুডিসিয়াল কমিটির বাইরে আর কারো কাছে নির্যাতনের কথা তুলে ধরেননি।

 

মাদকসেবীদের কোনো জায়গা পুলিশ বাহিনীতে হবে না

জাগো নিউজ
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

মাদকসেবীদের কোনো জায়গা পুলিশ বাহিনীতে হবে না বলে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম।

বুধবার (১৩ জানুয়ারি) সকালে রাজারবাগ পুলিশ অডিটোরিয়ামে আয়োজিত ডিএমপির মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। সভায় উপস্থিত পুলিশ কর্মকর্তাদের উদ্দেশে ডিএমপি কমিশনার বলেন, শুধু পাহারা দিয়ে অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করা যাবে না। বিভিন্ন অপরাধের সাথে যারা জড়িত তাদের গ্রেফতার করতে হবে, আইনের আওতায় এনে বিচার নিশ্চিত করতে হবে। মোহা. শফিকুল ইসলাম বলেন, বিট পুলিশিং কার্যক্রমকে আরও বেগবান করতে হবে। এর মাধ্যমে প্রচুর তথ্য পাওয়া যায় যা সমাজে অপরাধ নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

তিনি বলেন, মাদক নিয়ন্ত্রণে আরও বেশি তৎপর হতে হবে। মাদক শুধু উদ্ধার করলে হবে না, এর রুট পর্যন্ত যেতে হবে। প্রযুক্তিগত পদ্ধতি প্রয়োগের পাশাপাশি ম্যানুয়েল সোর্স নিয়োগের মাধ্যমে বস্তিসমূহ মাদকমুক্ত করত হবে।

মাদকসেবীদের চিহ্নিত করে তাদের মা-বাবা, অভিভাবকদের সাথে কথা বলতে হবে। তারা যেন সুপথে ফিরে আসতে পারে তার জন্য কাজ করতে হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

Baul singer Rita Dewan gets bail in case filed under Digital Security Act

The Daily Star
Category:  Digital security Act

A Dhaka tribunal today granted ad interim bail to Baul singer Rita Dewan in a case filed for “hurting religious sentiment” under the Digital Security Act.

Dhaka Cyber Tribunal Judge Mohammad Ash Sams Joglul Hossain granted bail to Rita till January 27 after she surrendered before the tribunal, seeking bail in the case, Shamim Al Mamun, bench assistant of the tribunal, told The Daily Star. On December 2, the tribunal issued arrest warrants against Rita Dewan, Shahjahan and Md Iqbal Hossain, accepting the probe report of the case.

Rita Dewan was sued on February 2 by a lawyer named Advocate Imrul Hasan. The case was filed with the cyber tribunal in Dhaka. Shahjahan and Md Iqbal had uploaded Rita’s songs to their YouTube channels, according to the case documents.

 

Measures taken to protect 1,220 monuments, murals of Bangabandhu: Police HQ tells HC

The Daily Star
Category: State Force

Measures taken to protect 1,220 monuments, murals of Bangabandhu: Police HQ tells HC

The police headquarters today submitted a report to the High Court, saying that it has taken all necessary measures to ensure protection of all monuments and murals of Father of the Nation Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman across the country.

There are a total of 1,220 monuments and murals of Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman where law enforcers are deployed round the clock, Deputy Attorney General Abdullah Al Mahmud Bashar told The Daily Star citing the report. Search lights and CCTV cameras were also set up in the areas, DAG Bashar, who placed the report to the HC, said.

The police headquarters submitted the report through the home ministry to the HC bench of Justice FRM Nazmul Ahasan and Justice Shahed Nuruddin in line with its December 7, 2020 order.

The HC bench has set January 21 for passing further order on this issue, DAG Bashar added.

ছড়িয়ে দিনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •