Trial Run

বরিশালে বালক শিশুকে ‘ধর্ষণ’, ইমাম আটক

ধর্ষক ইমাম আবুল হাসান হাওলাদার

এর আগে সকালে ইমাম আবুল হাসান হাওলাদারের বিরুদ্ধে উজিরপুর থানার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন শিশুটির মা। মামলা দায়েরের পরপরই ওসি জিয়াউল আহসানের নির্দেশনায় থানার উপ-পরিদর্শক রবিউল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশ অভিযান চালিয়ে বান্না গ্রাম থেকে ইমাম আবুল হাসান হাওলাদারকে গ্রেফতার করে।পরে তাকে বরিশালে কোর্টের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

মামলাসূত্রে জানা গেছে, উজিরপুর উপজেলার দক্ষিণ বান্না জামে মসজিদের ইমাম আবুল হাসান হাওলাদারের কাছে ওই এলাকার কামাল সিকদারের ছেলে আলাল সিকদারসহ বেশ কয়েকজন শিশু মক্তবে আরবী পড়তে যায়। প্রতিদিনের মতো ২১ নভেম্বর ভোর সাড়ে ৫টায় আলাল সিকদার মসজিদের ইমাম আবুল হাসান হাওলাদারের কাছে আরবী পড়তে মক্তবে যায়।

প্রতিদিন সকাল ৭টায় ছুঁটি হলেও সে সাড়ে ৭টায়ও বাসায় ফিরে না আসায় তাকে খুঁজতে বের হয় তার পরিবার।  এক পর্যায়ে সে বিমর্ষ অবস্থায় বাড়ি ফিরে আসে। তাকে সকালের নাস্তা খেতে বললেও না খেয়ে সে মনমরা অবস্থায় বসে থাকে এবং বার বার থুথু ফেলে ও বমির চেষ্টা করে। একপর্যায়ে সন্ধ্যার দিকে আলাল তার মাকে জানায় মসজিদের মক্তবের পড়া শেষ হলে তাকে ইমাম আবুল হাসান হাওলাদার ছুটি না দিয়ে তাহার কক্ষে ডেকে নিয়ে গিয়ে বলে “তোকে আজ একটা ভাল জিনিস খাওয়াবো”।

জানা গেছে, আবুল হাসান হাওলাদার তাহার লিঙ্গ শিশুটির মুখে জোরপূর্বক ঢুকিয়ে দিয়ে চুষতে বলে। শিশুটি অনিহা প্রকাশ করলে আবুল হাসান হাওলাদার তাকে বিভিন্ন ভয়ভিতী দেখিয়ে লিঙ্গ চুষতে বাধ্য করায় এবং জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

ন্যক্কারজনক এ ঘটনায় এলাকাবাসীর মাঝে চরম ক্ষোভের সঞ্চার হওয়ার পাশাপাশি এলাকায় নিন্দার ঝড় বইছে। এলাকাবাসী লম্পট এ ইমামের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন। এ প্রসঙ্গে উজিরপুর মডেল তানার ওসি জিয়াউল আহসান বলেন ঘটনাটি অত্যন্ত ঘৃনিত ও লজ্জাজনক। এ ব্যপারে মামলা নিয়ে আসামীকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

বরিশাল প্রতিনিধি

ছড়িয়ে দিনঃ
  • 135
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    135
    Shares