Trial Run

আইনপ্রয়োগের চিত্র ও গণমাধ্যম: ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১

স্টেটওয়াচ রিসার্চ নেটওয়ার্ক কাজ করছে বাংলাদেশে আইনপ্রয়োগের সার্বিক চিত্র তুলে ধরার পাশাপাশি মতপ্রকাশের স্বাধীনতা সংক্রান্ত বাস্তবতা নিয়ে। এর অংশ হিসেবে স্টেটওয়াচ নিউজে আমরা প্রতিদিনকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত খবরাখবরগুলো সংক্ষেপে তুলে ধরার উদ্যোগ নিয়েছি। প্রতিদিন নিম্নোক্ত মাধ্যমসমূহ থেকে সংবাদগুলো সংগ্রহ ও তা নথিবদ্ধ করছে আমাদের কর্মীরা: প্রথম আলো, কালের কণ্ঠ, যুগান্তর, সমকাল, নয়া দিগন্ত, ইত্তেফাক, দেশ রূপান্তর, ডেইলি স্টার, নিউ এজ, দ্য ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেস, বাংলা ট্রিবিউন, বিডিনিউজ২৪ ডটকম, আমাদের সময়, মানবজমিন। আমরা আশা করি, এই প্রতিবেদন নিয়মিত প্রকাশের মাধ্যমে জনগণের তথ্যপ্রাপ্তির অধিকার আরো শক্তিশালী হবে।

৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ শনিবার, ২২ মাঘ ১৪২৭, পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত
আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত নির্বাচিত খবরের সার-সংক্ষেপ

কারাগারের তথ্য বাইরে কিভাবে জানতে কমিটি

 কালের কন্ঠ

বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

কারাগারের তথ্য বাইরে কিভাবে যায় সেই বিষয়টি জানতে কমিটি গঠিত হয়েছে। গাজীপুরের কাশিমপুর-১ নম্বর কারাগারে হলমার্কের মহাব্যবস্থাপক তুষার আহমদ বিধি লঙ্ঘন করে এক নারীর সঙ্গে সময় কাটানোর ভিডিও গণমাধ্যমের হাতে কিভাবে গেল, তা জানতে এই কমিটি করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রধান করা হয়েছে কারা উপমহাপরিদর্শক ছগির মিয়াকে। সদস্যরা হলেন কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারের জ্যেষ্ঠ জেল সুপার (চলতি দায়িত্ব) গিয়াস উদ্দিন ও ফরিদপুর জেলা কারাগারের জেল সুপার আল মাসুম।

 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা কারাগারে হাজতির মৃত্যু

বাংলা টিব্রিউন

বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা কারাগারে হুমায়ূন মিয়া (৪৫) নামে এক হাজতির মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে তিনি মারা যান। তিনি কসবা উপজেলার বিষ্ণকুটি এলাকার আব্দুল মালেকের ছেলে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেল সুপার ইকবাল হোসেন এসব তথ্য জানান।  জেল সুপার জানান, সকালে হুমায়ূন হৃদরোগে আক্রান্ত হিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন। জেলা কারাগারের চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে পাঠান। সেখানে তিনি মারা যান। তিনি আরও জানান, গত ২৮ জানুয়ারি হুমায়ূনকে একটি মাদক মামলায় জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছিল।

এ বিষয়ে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক সৈয়দ আরিফুল ইসলাম জানান, জেলখানা থেকে হাসপাতালে আনার পর তাকে কার্ডিয়াক বিভাগে ভর্তি করা হয়েছিল। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

 

সাংবাদিকদের হত্যা হুমকির ঘটনায় ন্যাপের উদ্বেগ

জাগো নিউজ

বিভাগ: গণমাধ্যম

বৈশাখী টেলিভিশনের প্রধান বার্তা সম্পাদক সাইফুল ইসলাম এবং প্রতিবেদক কাজী ফরিদকে হত্যার হুমকি ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠা প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (বাংলাদেশ ন্যাপ)। দলটির চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া বলেন, সাংবাদিকদের হত্যা হুমকি শুভ লক্ষণ নয়।

শনিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তারা এ উদ্বেগের কথা জানান। বাংলাদেশে ন্যাপ নেতারা বলেন, দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মৃত্যু পরোয়ানা জারিতে তাদের পরিবারের পাশাপাশি সমাজ ও রাষ্ট্রও উদ্বিগ্ন এবং উৎকণ্ঠিত। সাংবাদিকদের নিরাপত্তা ঝুঁকি ক্রমেই বাড়ছে। সরকার ও প্রশাসনের নানা অনিয়ম, দুর্নীতি এবং স্বেচ্ছাচারিতা নিয়ে কথা বললেই এ অবস্থার সৃষ্টি হচ্ছে। দেশ যতই উন্নতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, ততোই হত্যা হুমকি ও ঝুঁকি বাড়ছে।

 

Three Kashimpur jail officers suspended over visit to inmate by woman

New Age

Category: State Force

 The home ministry has suspended three senior officials of Kashimpur-1 Central Jail for their alleged involvement in arranging a meeting between detained Hallmark general manager Tushar Ahmed and a woman in a prison officer’s room inside the jail in breach of the jail code on January 6.

The officials — Kashimpur-1 Central Jail superintendent Ratna Roy, jailer Nur Mohammad Mridha and deputy jailer Golam  Saklain — were suspended on Thursday as per the recommendation of the Prisons Directorate investigation committee report submitted to the home ministry on Wednesday,  said assistant inspector general of prisons Md Main Uddin. He said that the prisons directorate received an order of suspension in that connection and the implementation of the recommendations regarding other officials was in process.  The report recommended punishment for Ratna, Nur Mohammad and 16 others for arranging the meeting breaching the jail code, said a member of the three-member investigation committee.

 

Digital Security Act: It ensured Kishore, Mushtaq cannot speak truth to power

The Daily Star

Category: Digital Security Act

 A collective of students, teachers, and general public convened at Shahbagh yesterday to mark nine months since the incarceration of writer Mushtaq Ahmed and cartoonist Ahmed Kishore, both of whom had been imprisoned under the Digital Security Act. They had been arrested last year for creating political cartoons commenting on the pandemic, and for sharing those on social media. The speakers demanded their immediate release.

“The country is going through a crisis because of Digital Security Act. This Act was formed to make sure that people like Kishore and Mushtaq do not speak truth to power,” said Bangladesh Chhatra Federation’s central committee president, Golam Mustafa. “This is not for the safety of the general public, but for the safety of the government, so that the government can retain their power. This government does not take the opinion of the general public,” said Mustafa.

“As a cartoonist, Kishore wrote about corruption. You cannot silence our voices by arresting people under the DSA. Words will flow, the pen will go on,” he added.

 

ছড়িয়ে দিনঃ
  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

আপনার মতামত জানানঃ