Trial Run

আইনপ্রয়োগের চিত্র ও গণমাধ্যম: ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১

স্টেটওয়াচ রিসার্চ নেটওয়ার্ক কাজ করছে বাংলাদেশে আইনপ্রয়োগের সার্বিক চিত্র তুলে ধরার পাশাপাশি মতপ্রকাশের স্বাধীনতা সংক্রান্ত বাস্তবতা নিয়ে। এর অংশ হিসেবে স্টেটওয়াচ নিউজে আমরা প্রতিদিনকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত খবরাখবরগুলো সংক্ষেপে তুলে ধরার উদ্যোগ নিয়েছি। প্রতিদিন নিম্নোক্ত মাধ্যমসমূহ থেকে সংবাদগুলো সংগ্রহ ও তা নথিবদ্ধ করছে আমাদের কর্মীরা: প্রথম আলো, কালের কণ্ঠ, যুগান্তর, সমকাল, নয়া দিগন্ত, ইত্তেফাক, দেশ রূপান্তর, ডেইলি স্টার, নিউ এজ, দ্য ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেস, বাংলা ট্রিবিউন, বিডিনিউজ২৪ ডটকম, আমাদের সময়, মানবজমিন। আমরা আশা করি, এই প্রতিবেদন নিয়মিত প্রকাশের মাধ্যমে জনগণের তথ্যপ্রাপ্তির অধিকার আরো শক্তিশালী হবে।

৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১ বুধবার, ২০ মাঘ ১৪২৭, পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত
আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও গণমাধ্যম সংক্রান্ত নির্বাচিত খবরের সার-সংক্ষেপ

 

পুলিশের ৩১ অতিরিক্ত ডিআইজি নতুন কর্মস্থলে

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী

বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি পদমর্যাদার ৩১ জন কর্মকর্তাকে বদলি ও পদায়ন করা হয়েছে। মঙ্গলবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের এক প্রজ্ঞাপনে তাদের বদলি ও পদায়নের কথা জানানো হয়।

পুলিশ সদরদপ্তরের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. মিজানুর রহমানকে হাইওয়ে পুলিশ, আর সিলেট রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি জয়দেব কুমার ভদ্রকে রাজশাহী রেঞ্জে বদলি করা হয়েছে।

হাইওয়ে পুলিশের তানভীর হায়দার চৌধুরীকে ঢাকা সিআইডিতে, আর ঢাকা মহানগর পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মো. মনির হোসেনকে পুলিশ সদরদপ্তরে বদলি করা হয়েছে। রাজশাহী মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার সালমা বেগমকে  পুলিশের এন্টি টেররিজম ইউনিট, টাঙ্গাইল পুলিশ ট্রেনিং সেন্টারের অতিরিক্ত ডিআইজি শামীমা বেগমকে ঢাকা মহানগর পুলিশের যুগ্ম কমিশনার হিসেবে বদলি করা হয়েছে। রংপুর রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. মজিদ আলীকে রাজশাহী মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার হিসেবে বদলি করা হয়েছে। খুলনা পুলিশ ট্রেনিং সেন্টারের কমান্ড্যান্ট মো. আবুল কুদ্দুস আমিনকে ঢাকার পুলিশ স্টাফ কলেজের ভাইস রেক্টর হিসেবে বদলি করা হয়েছে। চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার এসএম মোস্তাক আহমেদ খানকে পুলিশ সদরদপ্তরে বদলি করা হয়েছে।

 

পুলিশের হাত থেকে আটক ব্যক্তিকে ছিনিয়ে নিল গ্রামবাসী

 সমকাল
বিভাগ: রাষ্ট্রীয় বাহিনী  

বগুড়ার শিবগঞ্জ থানার মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই আনিস ও এএসআই মিজান সোমবার সন্ধ্যায় ঝিনারপাড়া গ্রামে যান। তারা গ্রামের সেকেন্দার আলীর ছেলে আবুল কালামকে আটক করে হ্যান্ডকাফ পরান। এ সময় তার পরিবারের লোকজন আটকের কারণ জানতে চান।  পুলিশ তাদের জানায়, আবুল কালামের কাছে ফেনসিডিল পাওয়া গেছে। তবে সেই ফেনসিডিল দেখাতে না পারায় গ্রামের লোকজন পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে তাকে ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তারা হলো- সুলতান মাহমুদ, এরশাদ আলী, শিপন, মালেকা বেগম ও শেফালী বেগম।

আবুল কালামের স্ত্রী ফাতেমা বেগম অভিযোগ করেন, পুলিশ তার স্বামীকে গ্রেপ্তার করে পকেটে ফেনসিডিল ঢুকিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। এ সময় এলাকাবাসী প্রতিবাদ করে। স্থানীয়রা জানান, শিবগঞ্জ থানা পুলিশ সোনাতলা থানা এলাকায় প্রবেশ করে কোনো মামলা ছাড়াই আবুল কালামকে মাদক ব্যবসার অভিযোগে আটক করে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে তার স্বজনরা বাধা দেন এবং ছিনিয়ে নেন।

 

সুনামগঞ্জে সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত রইস গ্রেফতার

 বাংলা ট্রিবিউন
বিভাগ: গণমাধ্যম

তাহিরপুর প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক সাংবাদিক কামাল হোসেনকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় প্রধান অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার আসামি ঘাগটিয়া গ্রামের আলামত আলীর ছেলে রইস উদ্দিন। বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে উপজেলার মানিগাঁও গ্রামে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তাহিরপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) দীপঙ্কর বিশ্বাস। নির্যাতনের ঘটনায় এখন পর্যন্ত মোট পাঁচ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

প্রসঙ্গত, সোমবার দুপুরে তাহিরপুর উপজেলার যাদুকাটা নদীর পাড় কেটে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের সংবাদ পেয়ে সাংবাদিক কামাল হোসেন ছবি তুলতে যান। এসময় স্থানীয় বালু-পাথরখেকো চক্রের সদস্যরা কামাল হোসেনের ওপর হামলা চালায়। পরে ঘাগটিয়াবাজারে গাছের সঙ্গে বেঁধে তার ওপর নির্যাতন চালানো হয়। পরে স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে উপজেলার বাদাঘাট ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মাহমুদুল হাসানের নেতৃত্বে একদল পুলিশ তাকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করে। সেখান থেকে কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠায়।

 

সাংবাদিক দম্পতি সাগররুনি হত্যা মামলা তদন্ত প্রতিবেদন ১১ মার্চ

 নয়া দিগন্ত
বিভাগ: গণমাধ্যম

সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যা মামলায় তদন্তে অগ্রগতির প্রতিবেদন আগামী ১১ মার্চ ধার্য করেছেন আদালত। বুধবার মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত সংক্রান্ত কোনো প্রতিবেদন আদালতে দাখিল না করায় ঢাকার মহানগর হাকিম দেবদাস চন্দ্র অধিকারী মামলার নথি পর্যালোচনা করে উপরোক্ত নতুন তারিখ ধার্য করেন।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি মাছরাঙ্গা টেলিভিশনের বার্তা সম্পাদক সাগর সারোয়ার ও এটিএন বাংলার সিনিয়র প্রতিবেদক মেহেরুন রুনিকে হত্যা করা হয়। এরপর নিহত রুনির ভাই নওশের আলম রোমান শেরেবাংলা নগর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। প্রথমে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ছিলেন ওই থানার এক উপ-পরিদর্শক (এসআই)। চার দিন পর চাঞ্চল্যকর এ হত্যা মামলার তদন্তভার ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) কাছে হস্তান্তর করা হয়। দুই মাসেরও বেশি সময় তদন্ত করে রহস্য উদঘাটনে ব্যর্থ হয় ডিবি। পরে হাইকোর্টের নির্দেশে একই বছরের ১৮ এপ্রিল হত্যা মামলাটির তদন্তভার র‌্যাবের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

 

ভুয়া বিলভাউচারে দুই কোটি ১৯ লাখ টাকা আত্মসাৎ, গ্রেফতার

 বাংলা টিব্রিউন
বিভাগ: ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন

 ভুয়া বিল-ভাউচার তৈরি ও ডিজিটাল ডিভাইসে বেআইনিভাবে প্রবেশ করে ইলেকট্রনিক জালিয়াতির মাধ্যমে আইন বহির্ভূত ই-ট্রানজেকশনে সরকারি কোষাগার থেকে ২ কোটি ১৯ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে দুই সরকারি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় ওই দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনসহ বিভিন্ন ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। একই সঙ্গে তাদের গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ। মঙ্গলবার (২ ফেব্রুয়ারি) বিকালে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন কোতোয়ালি থানার ওসি মোজাফফর হোসেন। এর আগে, সোমবার দিবাগত রাতে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার দুই জন হলেন দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ‘ক্যাশ সরকার’ পদে কর্মরত আমিরুল ইসলাম (৩৪) এবং অপরজন জেলা অ্যাকাউন্টস অ্যান্ড ফিন্যান্স অফিসের ‘অডিটর’ পদে কর্মরত মাহাফুজার রহমান (৪২)।

 

4 held for beating Sunamganj journalist

The Daily Star
Category: Media

Police detained four people yesterday in connection with a case for beating a journalist after tying him to a tree in Sunamganj’s Tahirpur upazila on Monday.

The arrestees are Foysal Ahmed, 19, Anharul Islam, 20, Tahir Hossain, 22, and Masrubul Islam, 26. Earlier, victim Kamal Hossain filed a case with Tahirpur Police Station accusing 11 people yesterday, Sub Inspector of the police station Dipankar Biswas said. Protesting the heinous attack, Sunamganj Reporters’ Unity formed a human chain at Altaf Uddin Square in the town.

On Monday noon, a group of locals beat up Kamal, Tahirpur upazila correspondent of national daily Sangbad, when he went to Ghagotia area to cover a report on lifting sand and stone illegally from the bank of Jadukata river.

ছড়িয়ে দিনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আপনার মতামত জানানঃ