Trial Run

যুবদল নেতা লিয়ন হক নিখোঁজ

যুবদলের পল্টন থানার যুগ্ম আহবায়ক লিয়ন হককে  ১৭ নভেম্বর, ২০২০ মঙ্গলবার বিকাল  থেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও দফতর এর চলতি দায়িত্বে থাকা সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স দাবী করেন।

বিবৃতিতে জাতীয়তাবাদী যুবদল, পল্টন থানা শাখার যুগ্ম আহবায়ক লিয়নকে মঙ্গলবার দুপুর থেকে পাওয়া যাচ্ছে না বলে দাবী করা হয়। তার সহকর্মীরা জানিয়েছেন যুবদলের পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী মঙ্গলবার মিছিলের পর থেকে তার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। এ নিয়ে তার পরিবার ও সংগঠনের নেতাকর্মীরা গভীর উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় রয়েছেন বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।

উল্লেখ্য যে, গত ১২ নভেম্বর, ২০২০ ঢাকা ১৮ আসনের  উপনির্বাচনে ভোটগ্রহণের দিন রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে মোট ১১টি বাসে আগুন দেওয়া হয়। ওই ঘটনায় পরে রাজধানীর ৯টি থানায় মোট ১৬টি মামলা হয়। এসব মামলায় বিএনপির দেড় শতাধিক নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়। ওই মামলার পর পুলিশ বেশ কয়েকজন বিএনপি নেতাকর্মী গ্রেফতার করেছে। তবে লিয়নকে গ্রেফতার করা হয়েছে এমন কোনো তথ্য পুলিশ সূত্রে জানা যায়নি।

বিবৃতিতে বিএনপি নেতা প্রিন্স বলেন, বিরোধী নেতাকর্মীদেরকে আটকের পর অস্বীকার করার বিষয়টি বর্তমান সরকারের আমলে সংঘটিত গুমেরই ধারাবাহিকতা হিসেবেই ধরে নিচ্ছে ভুক্তভোগী পরিবারগুলো। এছাড়া কমপক্ষে ১২ জনকে আটক এবং আরও অনেকের বাড়িতে অভিযান চলছে বলে অভিযোগ করা হয় বিবৃতিতে। বাড়িতে নেতাকর্মীদের না পেয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী স্বজনদের সঙ্গে অশালীন আচরণ করছে বলে দাবী করা বিএনপির পক্ষ থেকে।

এর আগেও গত ১২ নভেম্বর ২০২০ থেকে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান এবং হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান নিখোঁজ হবার পরও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের আটকের বিষয়টি অস্বীকার করে। পরবর্তীতে চার-পাঁচ দিন অজ্ঞাত স্থানে আটক রাখার পর তাদের থানায় হস্তান্তর করা হয়। মঙ্গলবার যুবদল খিলগাঁও থানা শাখার সভাপতি আবুল হাসনাত অনুকেও সাদা পোশাকধারী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা আটক করে নিয়ে যাওয়ার পর থেকে তারও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। এর ৮ ঘণ্টা পর অনুকে একইদিন রাতে পল্টন থানায় হস্তান্তর করা হয়।

বিএনপির মুখপাত্র আরো বলেন, লিয়ন হকের রাজনৈতিক সহকর্মী ও পরিবারের বদ্ধমূল ধারণা তাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আটক করে গোপন রাখছে।

বিবৃতিতে জনাব প্রিন্স আশা প্রকাশ করে বলেন, অবিলম্বে লিয়ন হককে জনসম্মুখে হাজির করা হবে। অন্যথায় তার অনাকাঙ্ক্ষিত কিছু হলে কোনোভাবেই এর দায় সরকার ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এড়াতে পারবে না।

ফাআ/নসদ/২০৫৭

ছড়িয়ে দিনঃ
  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    5
    Shares