About us

Statewatch.net
(law enforcement related information and people’s network)

বাংলাদেশে ও দক্ষিণ এশিয়ায় আইনপ্রয়োগের নামে আসলে কী করা হচ্ছে তা জানার অধিকার সারা বিশ্বেরই রয়েছে। কিন্তু এটা পরিষ্কার, সেখানে যা কিছু ঘটছে, তা নিয়ে বিশ্ববাসীর কাছে পর্যাপ্ত তথ্য নেই। উন্নত দেশগুলোর তথ্য যেমন সহজে পাওয়া যায়, স্বল্পোন্নত দেশগুলোর ক্ষেত্রে সেটা কঠিন এবং ক্ষমতাসীনদের অসহযোগিতা ও চোখ রাঙানি তো রয়েছেই। গণমাধ্যম ও এর কর্মীরাও চাপ বা নিপীড়নের শিকার। তাছাড়া অনেক গণমাধ্যমই সরকারি দলের নেতাদের মালিকানায় বা তাদের ঘনিষ্ঠদের দখলে। ফলে রাষ্ট্রপক্ষের কাজকর্মের খতিয়ান ঠিকঠাক প্রতিফলিত হচ্ছে না।

‘স্টেটওয়াচ’ এই ঘাটতি দূরীকরণে ভূমিকা রাখতে চায়। এটি ‘ল’ এনফোর্সমেন্ট’ সম্পর্কিত একটি ওয়েবভিত্তিক ‘ইনফরমেশন অ্যান্ড পিপলস নেটওয়ার্ক’। বাংলাদেশ রাষ্ট্রের কর্মকাণ্ড বিশ্লেষণ করে সারা বিশ্বের জনগণের সম্মুখে সঠিক ও পূর্ণাঙ্গ চিত্র তুলে ধরার লক্ষ্যে এটি কাজ করছে। প্রতিষ্ঠানটি সবেমাত্র যাত্রা শুরু করেছে এবং দুই ধাপে নানা পদক্ষেপ বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে এটি তার লক্ষ্যে পৌঁছাতে চায়। প্রথম ধাপের আওতায় ওয়েবসাইট চালু করা হয়েছে। ‘স্টেটওয়াচ নিউজ টিম’-এ বাংলাদেশ ও ইউরোপভিত্তিক সাংবাদিক ও গবেষকরা কাজ করছেন। ওয়েবসাইটটি আপাতত প্রাথমিক অবস্থায় রয়েছে এবং ক্রমাগত উন্নতির চেষ্টাও চলছে।

শুরু থেকেই রাষ্ট্রবীক্ষণের ওপর প্রতিবেদন হাজির করবে ‘স্টেটওয়াচ রিসার্চ টিম’। এর পাশাপাশি বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, লোকপ্রশাসন, আইন-বিচার, সরকার-রাজনীতি, নৃবিজ্ঞান, লিঙ্গবৈষম্য ও অপরাধতত্ত্বসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলোর শিক্ষার্থীদের নিয়ে প্রশিক্ষণ আয়োজন করবে ‘স্টেটওয়াচ নেটওয়ার্কিং টিম’। প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণকারী ছাত্র ও প্রশিক্ষকদের সমন্বয়ে ‘স্টেটওয়াচ মবিলাইজেশন টিম’ গঠন ও এগিয়ে নেয়ার লক্ষ্য রয়েছে। নেটওয়ার্কের সদস্যরা সাংগঠনিকভাবে ‘আইন প্রয়োগ’ সংক্রান্ত নানা ঘটনা নিয়ে মতামত প্রকাশ ও জনমত গঠনে অংশ নেবে।

স্টেটওয়াচ এভাবেই বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে বাংলাদেশে আইন প্রয়োগের বাস্তব চিত্র তুলে ধরতে চায়। যেন সারা বিশ্বের জনগণ চাইলেই এ বিষয়ে যেকোনো সময় পূর্ণাঙ্গ তথ্য সংগ্রহ করতে পারে। এর ফলে একদিকে যেমন বাংলাদেশের জনগণের তথ্যপ্রাপ্তির অধিকার পূরণ হবে, তেমনি অন্যদিকে নির্যাতিত-নিপীড়িতদের সাহায্য/সমর্থন পাওয়ার পথ খুলে যাবে। আদিবাসী, নারী, ধর্মীয় সংখ্যালঘুসহ পশ্চাৎপদ জনগোষ্ঠীর বিকাশের পথ সরলতর হবে। বিপুল সংখ্যক তরুণ শিক্ষার্থী এই প্রক্রিয়ায় যুক্ত হওয়ার মাধ্যমে সচেতন হয়ে উঠবে। বাংলাদেশ রাষ্ট্র তার ভুল-ত্রুটি শুধরে একটি সুষ্ঠু গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে উত্তরণের পথ খুঁজে পাবে।

যোগাযোগ :
State Watch
Immenbusch 11 (2nd Floor),
22549 Hamburg, Germany
Tel : +49 40 88368905
E-mail : [email protected]