Trial Run

হেফাজত নেতাদের রিমান্ডে নির্যাতনের গুজব ছড়িয়ে যুবক গ্রেফতার

ছবি: ঢাকা পোষ্ট

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের গ্রেফতারকৃত নেতাদের রিমান্ডে নির্যাতনের গুজব ছড়ানোর অভিযোগে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন ডিভিশন। মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ থেকে মোঃ রানা মন্ডল নামের ওই যুবককে গ্রেফতারের পর রাতে ঢাকায় আনা হয়। এদিকে ফেসবুকে হেফাজতে ইসলামের পক্ষে বিভিন্ন পোস্ট দেওয়ায় গোপালগঞ্জে ছাত্রলীগের তিন নেতাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

নির্যাতনের গুজব

বুধবার (২৮ এপ্রিল) পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন ডিভিশনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) মোঃ নাজমুল  জানান, রানা ইউটিউব ও ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গ্রেফতার হওয়া হেফাজত নেতাকর্মীদের পুলিশ রিমান্ডে নিয়ে নির্যাতন করেছে বলে গুজব ছড়াচ্ছিল। তিনি বিভিন্ন মনগড়া, আক্রমণাত্মক, মিথ্যা, ভীতি প্রদর্শক, মানহানিকর ও ধর্মীয় উস্কানিমূলক গুজব রটিয়ে দেশের আইন-শৃঙ্খলার অবনতি ঘটানোর চেষ্টা করছিল।

তিনি আরও বলেন, প্রযুক্তি ব্যবহার করে জানা যায়, হলি টিভি টুয়েন্টিফোর ইউটিউব চ্যানেল পরিচালনাকারী রানা মন্ডলের (২৮) সঙ্গে হাফেজ মোঃ আব্দুর রহিম শেরপুরী (৩৫) এসব কার্যক্রমে জড়িত।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি ইউটিউব চ্যানেল হলিটিভি পরিচালনা করে বলে জানায়। সেই চ্যানেলে সংশ্লিষ্ট ভিডিওসহ একই রকম প্রায় ছয় শতাধিক মনগড়া ভিডিও পাওয়া যায়। তিনি এরকম আরও একাধিক ইউটিউব চ্যানেল পরিচালনা করে বলে জানায়। হাফেজ মোঃ আব্দুর রহিম শেরপুরীর (৩৫) মাধ্যমে মনগড়া ও উস্কানিমূলক ভিডিও ধারণ করত। পরে সেগুলোর সঙ্গে অন্যান্য ভিডিওর কাটপিছ সম্পাদনা করে প্রচার করত।

এডিসি বলেন, রানা ও তার সহযোগী আব্দুর রহিমের বিরুদ্ধে রমনা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দেওয়া হয়েছে। রহিমকে গ্রেফতারের চেষ্টা করছে পুলিশ।

হেফাজতের পক্ষে ফেসবুকে পোস্ট, ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার

গোপালগঞ্জে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের নেতা মামুনুল হকের পক্ষে অবস্থান নিয়ে লেখালেখির অভিযোগে ৩ ছাত্রলীগ নেতাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শরিফুল ইসলাম সিকদার ও সাধারণ সম্পাদক মোল্লা রনি হোসেন কালু স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান হয়েছে।

বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ নেতারা হলেন- গোপালগঞ্জ সদরের উলপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জামিল আহমদ ও ফয়সাল সরদার ও ক্রীড়া সম্পাদক শেখ রোমান আহম্মেদ। স্থায়ীভাবে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে বলেও ওই প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

বহিষ্কৃত ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক ক্রীড়া সম্পাদক শেখ রোমান আহমেদ বলেন, উলপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জামিল আহমদ ফেসবুকে হেফাজতের নেতা মামুনুল হককে নিয়ে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছিল। ওই স্ট্যাটাসে তিনি অনেক আজেবাজে মন্তব্য লেখেন। আমি সেখানে লিখেছিলাম ‘একজন আলেম সম্পর্কে কোনো কমেন্ট করতে হলে সেই সম্পর্কে জেনে সত্যটা লেখা উচিত। সত্য না জেনে কোনো মন্তব্য করা ঠিক নয়’।

তিনি আরও বলেন, আমি এমন কোনো মন্তব্য করিনি যে দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গ হবে। আমি যা বলেছি সেটা একজন সাধারণ নাগরিক হিসেবে বলেছি। এর জন্য দল থেকে বহিষ্কার করার মতো কিছু ঘটেনি। গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. শরীফুল ইসলাম সিকদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, হেফাজতের পক্ষে অবস্থান নিয়ে ফেসবুকে লেখালেখি করায় তাদের দল থেকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এসডব্লিউ/এমএন/ এফএ/১৮৩৩


State watch সকল পাঠকদের জন্য উন্মুক্ত সংবাদ মাধ্যম, যেটি পাঠকদের অর্থায়নে পরিচালিত হয়। যে কোন পরিমাণের সহযোগিতা, সেটি ছোট বা বড় হোক, আপনাদের প্রতিটি সহযোগিতা আমাদের নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে ভবিষ্যতে বড় অবদান রাখতে পারে। তাই State watch-কে সহযোগিতার অনুরোধ জানাচ্ছি।

ছড়িয়ে দিনঃ
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আপনার মতামত জানানঃ